হরিদ্বার: মোদী সরকারের অস্বস্তি বাড়াল সঙ্ঘের অনুগামী সংগঠন ৷ যেখানে রাজকোষের বেহাল দশা কাটাতে মোদী সরকার বিলগ্নিকরণের দিকে ঝুঁকছে তখন তারই বিরোধিতা করতে দেখা গেল স্বদেশি জাগরণ মঞ্চের ৷ কয়েকদিন আগে পাঁচটি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বিলগ্নিকরণের সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্র। সে কথা ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন৷ এদিকে আরএসএসের অনুমোদিত সংগঠন স্বদেশি জাগরণ মঞ্চ সেটা আদৌ ভাল চোখে দেখছে না ৷

এই সংগঠনের ধারণা,মোদী সরকারের এই সিদ্ধান্ত ‘দেশের স্বার্থ-বিরোধী’৷ পাশাপাশি সন্দেহ প্রকাশ করেছে, এই পথে কিছু শিল্প সংস্থাকে সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার মধ্যে দুর্নীতি রয়েছে৷ তাই অবিলম্বে এভাবে জলের দরে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাগুলিকে বেসরকারি সংস্থার হাতে বেচে দেওয়ার পরিকল্পনা বাতিল করার দাবিও তোলা হয়েছে। গোটা বিষয়টির পিছনে কিছু আমলা ও ক্ষমতাশীল ব্যক্তি ‘ষড়যন্ত্র’ চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ তোলা হয়েছে।

হরিদ্বারের তাদের বৈঠকে প্রস্তাব গ্রহণের পরে এই সংগঠনের নেতা অশ্বিনী মহাজন জানিয়েছেন,রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বিলগ্নিকরণ শুধুমাত্র হঠকারী ব্যবসায়িক সিদ্ধান্তই নয়, এটি হল দেশের স্বার্থের পরিপন্থীও। তাঁর মতে, একদিকে যেমন এই ব্যবস্থা ভারতের জনতার অধিকারকে অস্বীকার করছে অন্যদিকে ক্রেতাদের অসাধু সুযোগ পাইয়ে দেওয়ার হচ্ছে ।

স্বদেশি জাগরণ মঞ্চের মতে, রাষ্ট্রায়ত্ত এয়ার ইন্ডিয়ার বিলগ্নিকরণ কোনও সমাধান নয় বরং সংস্থার পুনর্গঠন ও পেশাদার পরিচালনার মাধ্যমে তা বাঁচিয়ে তোলা দরকার ৷ তাছাড়া, অসৎ উদ্দেশ্যে এয়ার ইন্ডিয়ার দেনা করার জন্য সংস্থাটি এভাবে লোকসানে চলে গিয়েছে তা ঠিক মতো পুনর্গঠন করলে ফের সংস্থাটি লাভের মুখ দেখবে বলে আশা মঞ্চের । অন্যদিকে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত তেল সংস্থা ভারত পেট্রোলিয়াম (বিপিসিএল) যেখানে লাভ করছে তার শেয়ার বেসরকারি সংস্থার কাছে বেচাতে আপত্তির কথা জানিয়েছে এই সংগঠনটি। তা ছাড়া শিপিং কর্পোরেশন, কন্টেনার কর্পোরেশনের বিলগ্নির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধেও অভিমত প্রকাশ করেছে মঞ্চ৷ যখন কর আদায়ের লক্ষ্যপূরণ হচ্ছে না, তখন সরকারি সংস্থা বেচে এককালীন টাকা জোগাড় করা আদৌ বুদ্ধিমানের কাজ নয় বলে অভিমত প্রকাশ করেছে সঙ্ঘ অনুগামী এই সংগঠনটি।