লন্ডন: বড় ক্লাবগুলোর জয়ে দিনে ব্যতিক্রম ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। শনিবার প্রিমিয়র লিগে উত্তেজক অ্যাওয়ে ম্যাচে নরউইচ সিটির কাছে ২-৩ গোলে হেরে বসল স্কাই ব্লুজ’রা। সার্জিও আগুয়েরো ও রড্রি দুই অর্ধে দু’টি গোল করলেও তা এদিন যথেষ্ট ছিল না পেপ গুয়ার্দিওলার দলের জন্য। ফলস্বরূপ জানুয়ারির পর প্রিমিয়র লিগে প্রথম পরাজয়ের স্বাদ পেল ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

এমেরিক ল্যাপোর্টেহীন ম্যান সিটি রক্ষণ এদিন শুরু থেকেই কিছুটা অবিন্যস্ত দেখাতে শুরু করে। ১৮ মিনিটে নরউইচ সিটির প্রথম গোল সেটপিস থেকে। কর্নার থেকে অরক্ষিত অবস্থায় দাঁড়িয়ে থাকা কেনি ম্যাকলিন দুরন্ত হেডে স্কোরলাইন ১-০ করেন। দশ মিনিট বাদে ঘরের মাঠে ব্যবধান ২-০ করেন টড ক্যান্টওয়েল। প্রতি আক্রমণে এমি বুয়েন্দিয়ার পাস থেকে সহজেই বিপক্ষ গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন তিনি। সবাই যখন ধরে নিয়েছে দু’গোলে পিছিয়ে থেকেই বিরতিতে যাবে ম্যান সিটি, ঠিক তখনই সমীকরণ বদলে দেন আগুয়ারো। বাঁ-দিক থেকে বার্নার্দো সিলভার ক্রস দর্শনীয় হেডে তিনকাঠিতে রাখেন আর্জেন্তাইন স্ট্রাইকার।

প্রথমার্ধের অন্তিম সময়ে ম্যাচে ফিরলেও দ্বিতীয়ার্ধে ম্যান সিটি রক্ষণের ভুলে ফের ব্যবধান বাড়িয়ে নেয় নরউইচ সিটি। বক্সের মধ্যে ম্যান সিটি ডিফেন্ডার নিকোলাস ওটামেন্ডির পা থেকে এক্ষেত্রে বল ছিনিয়ে নেন বুয়েন্দিয়া। এরপর স্কোয়্যার পাশে তা টিমু পুক্কির উদ্দেশ্যে বাড়িয়ে দেন তিনি। কার্যত ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা ফিনিশ স্ট্রাইকার তা থেকে গোল করতে কোনও ভুল করেননি। এই গোলের সঙ্গে সঙ্গেই তিন পয়েন্ট মোটামুটি নিশ্চিত হয়ে যায় নরউইচ সিটির। ৮৮ মিনিটে দূরপাল্লার শটে রড্রি ব্যবধান কমালেও ম্যান সিটির জয়ের জন্য বা ড্রয়ের জন্য তা পর্যাপ্ত ছিল না।

হারের পর লিগ টেবিলে দ্বিতীয়স্থানে থাকলেও শীর্ষে থাকা লিভারপুলের সঙ্গে ম্যান সিটির পয়েন্টের ব্যবধান বেড়ে দাঁড়াল ৫। অন্য ম্যাচে ঘরের মাঠে ক্রিস্টাল প্যালেসকে ৪-০ গোলে হারাল টটেনহ্যাম। কোরিয়ান স্ট্রাইকার সন হিউং মিনের জোড়া গোলের পাশে স্কোরশিটে নাম তোলেন এরিক লামেলা। অপর গোলটি আত্মঘাতী। প্রথমার্ধেই বিপক্ষের জালে চারবার বল জড়িয়ে ম্যাচ পকেটে পুড়ে নেয় স্পারস। এই জয়ের ফলে ৫ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে গোলপার্থক্যে তৃতীয়স্থানে রইল লন্ডনের ক্লাবটি। সমসংখ্যক ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ পঞ্চম ও ষষ্ঠস্থানে রয়েছে ম্যান ইউ, লেস্টার সিটি ও চেলসি।