লন্ডন: জোড়া পেনাল্টি নষ্ট। তবু চার ম্যাচ পর প্রিমিয়র লিগে জয়ে ফিরল ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড। সমর্থকদের আশ্বস্ত করে অ্যাওয়ে ম্যাচে নরউইচ সিটিকে ৩-১ গোলে হারাল ওলে গানার সোল্কজায়েরের দল। গোল করলেন ম্যাকটোমিনে, রাশফোর্ড এবং মার্শিয়াল। সেইসঙ্গে ১০ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট সংগ্রহ করে লিগ টেবিলে সাত নম্বরে উঠে এল ‘রেড ডেভিলস’।

প্রিমিয়র লিগে শেষ আটটি অ্যাওয়ে ম্যাচে জয় অধরা ছিল ম্যান ইউ’য়ের। রবিবার অবশেষে কাটল অ্যাওয়ে ম্যাচে জয়ের খরা। জোড়া পেনাল্টি নষ্ট এদিন বড় হয়ে দেখা দিতেই পারত। কিন্তু মরশুমের সেরা পারফরম্যান্সে জোড়া পেনাল্টি মিসও গৌণ হয়ে গেল ম্যাচ শেষে। ইংলিশ স্ট্রাইকার মার্কাস রাশফোর্ডের নেওয়া প্রথম স্পটকিক বিপক্ষ গোলরক্ষক টিম ক্রালের দস্তানায় আটকে যাওয়ার আগেই এদিন ম্যাচে লিড নিয়ে নেয় ২০ বারের লিগ জয়ীরা। একইসঙ্গে প্রথম ক্লাব হিসেবে প্রিমিয়র লিগে ২০০০ গোলের মাইলস্টোন স্পর্শ করে ম্যান ইউ।

ডানপ্রান্তিক আক্রমণ থেকে ভেসে আসা একটি বল নরউইচ রক্ষণে প্রতিহত হলে ফিরতি বল জালে রাখেন স্কট ম্যাকটোমিনে। এরপর ৩০ মিনিটে ড্যানিয়েল জেমসের বাড়ানো লম্বা বল ধরে ঠান্ডা মাথায় ব্যবধান ২-০ করেন রাশফোর্ড। ২৮ মিনিটে পেনাল্টি নষ্টের প্রায়শ্চিত্ত করে ম্যান ইউ জার্সিতে প্রিমিয়র লিগে ৫০তম গোল করে যান ইংলিশ স্ট্রাইকার। এরপর ৪১ মিনিটে বক্সের সামান্য বাইরে থেকে ফ্রেডের নেওয়া শট বক্সের ভিতর হাতে লাগান নরউইচ রক্ষণভাগের এক ফুটবলার। প্রাথমিকভাবে রেফারি বিষয়টি এড়িয়ে গেলেও দ্বিতীয়বার রেফারিকে ভিএআরের সাহায্য নিতে চাপ দেন ম্যান ইউ ফুটবলাররা।

ভিএআরের সাহায্য নিয়ে ম্যাচে দ্বিতীয়বার ম্যাঞ্চেস্টারকে পেনাল্টি প্রদান করেন রেফারি। উল্লেখ্য ম্যান ইউয়ের প্রথম পেনাল্টিও এসেছিল ভিএআরের সাহায্যেই। যাইহোক, বিরতির সামান্য আগে ফরাসি স্ট্রাইকার মার্শিয়ালের নেওয়া দ্বিতীয় স্পটকিকও বাঁ-দিকে ঝাঁপিয়ে দুরন্ত ক্ষিপ্রতায় রক্ষা করেন ক্রাল। তবে ৭৩ মিনিটে বক্সের মধ্যে রাশফোর্ডের বুদ্ধিদীপ্ত ব্যাকহিল পাস থেকে পেনাল্টি নষ্টের প্রায়শ্চিত্ত করেন মার্শিয়ালও। আগুয়ান গোলরক্ষকের নাগাল এড়িয়ে দুরন্ত টোকায় ব্যবধান ৩-০ করেন ফরাসি স্ট্রাইকার। বলা যেতে পারে হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি সারিয়ে ফ্রেঞ্চম্যানের অন্তর্ভুক্তিতেই এদিন বদলে যায় ম্যান ইউ আপফ্রন্টের চেহারা।

লিগের অন্য ম্যাচে পিছিয়ে পড়েও ঘরের মাঠে টটেনহ্যামকে পরাজিত করল লিগ শীর্ষে থাকা লিভারপুল। অ্যানফিল্ডে এদিন ম্যাচের ৫ মিনিটে অধিনায়ক হ্যারি কেনের দুরন্ত হেডারে ম্যাচে লিড নেয় টটেনহ্যাম। বিরতির পর অধিনায়ক হেন্ডারসনের দুরন্ত ভলিতে ম্যাচে সমতায় ফেরে লিভারপুল। এরপর ৭৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে জয়সূচক গোল করে লিভারপুলকে পুরো তিন পয়েন্ট এনে দেন মোহামেদ সালাহ। এই জয়ের ফলে লিগের মগডালে থাকা ১০ ম্যাচে রেডস’দের পয়েন্ট সংখ্যা বেড়ে হল ২৮। দ্বিতীয়স্থানে থাকা ম্যান সিটির চেয়ে পরিষ্কার ৬ পয়েন্টে এগিয়ে জুর্গেন ক্লপের ছেলেরা।