গুয়াহাটি: আর কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা৷ তারপরই আইএসএল-টুতে প্রথম বারের জন্য মুখোমুখি হতে চলেছে বিরাট কোহলির এফসি গোয়া এবং জন আব্রাহমের নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেড৷ বৃহস্পতিবার খেলা হবে নর্থ-ইস্টের ঘরের মাঠ গুয়াহাটি স্টেডিয়ামে৷এফসি গোয়ার এটিই প্রথম অ্যাওয়ে ম্যাচ৷

জিকোর গোয়া এর আগের ম্যাচে চেন্নাইয়িন এফসির কাছে ০-৪ গোলে পর্যুদস্ত হয়েছে৷ ওই ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেছিলেন চেন্নাইয়িনের ষ্টিভেন মেন্ডোজা৷ ম্যাচটিতে একবারের জন্যও গোলের মুখ খুলতে পারেনি রোমিও-মন্দাররা৷ যা অবশ্যই জিকোকে চিন্তায় রাখবে৷ চার গোল হজম করায় রক্ষণও নিঃসন্দেহে নর্থ-ইস্ট ম্যাচের আগে গোয়া শিবিরকে ভাবাবে৷

অন্যদিকে এখনও এক পয়েন্ট না পাওয়া সিজার ফারিয়াসের ছেলেরা ঘরের মাঠে জেতার জন্যই ঝাঁপাবে৷ শেষ ম্যাচে পুণের কাছে ০-১ গোলে হেরেছে তারা৷ রালতের ভুলে আত্মঘাতী গোল খায় নর্থ-ইস্ট৷ কিন্তু সারা ম্যাচে আধিপত্য ছিল উত্তর-পূর্বের দলটিরই৷ বুধবার জিকোও জানান, “পুণের বিরুদ্ধে নর্থ-ইস্টেরই জেতা উচিত৷ এটা তাদের দুর্ভাগ্য যে ম্যাচটি তারা হেরে গিয়েছে৷”

চেন্নাইয়িন ম্যাচে হারের প্রসঙ্গে জিকো জানান, “আমার ১৬ বছরের কোচিং জীবনে কখনও ৪-০ গোলে হারিনি৷ পরের ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াতে হবে৷” তিনি আরও বলেন, “নর্থ-ইস্টের সমর্থকরা সবসময় নিজেদের দলের জন্য গলা ফাটায়। আমরা সবসময় গ্যালারি ভর্তি দর্শকদের সামনে খেলতে পছন্দ করি৷ জয় দিয়েই দর্শকদের প্রতিদান দিতে চাই।” এখন দেখার জিকোর ছেলেরা নিজেদের প্রথম অ্যাওয়ে ম্যাচে কেমন খেলে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.