ওয়াশিংটন:  নতুন করে উত্তেজনা বাড়ছে বিশ্বে। বছরখানেক আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কিমের বৈঠক বাতিল হয়ে যাওয়ার পর থেকে ফের শক্তি পরীক্ষায় উত্তর কোরিয়া। স্যাটেলাইটের থেকে পাওয়া ছবিতে দেখা গিয়েছে যে গুঁড়িয়ে দেওয়া সমস্ত পরমাণু ঘাঁটিগুলি নতুন করে ফের একবার নির্মাণ করছে উত্তর কোরিয়া। শুধু তাই নয়, নতুন করে একের পর এক অস্ত্রে পরীক্ষাও চালিয়ে যাচ্ছে। কখনও জাপান সাগর তো কখনও উত্তর এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সীমান্তে মিসাইলের পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে। যা নিয়ে নতুন করে তৈরি হয়েছে উত্তেজনা।

এবার আরও একধাপ বাড়িয়ে একেবারে পরমাণু অস্ত্রবহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রবাহী সাবমেরিন মোতায়েনের প্রস্তুতি নিতে চলেছে উত্তর কোরিয়া। বিভিন্ন তথ্য থেকে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে জাপানের সম্প্রচার সংস্থা এনএইচকে এই খবর প্রকাশিত করেছে। প্রকাশিত খবরে একাধিক মার্কিন গোয়েন্দাকে কোট করা হয়েছে। তাঁরা জানাচ্ছেন, উত্তর কোরিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় বন্দর সিনপোতে যে তৎপরতা চলছে তার ভিত্তিতে মনে করা হচ্ছে যে পিয়ংইয়ং পরমাণু অস্ত্রবহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রবাহী সাবমেরিন মোতায়েনের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

প্রকাশিত খবরে মার্কিন মিডলবারি ইন্সটিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ এবং উপগ্রহ দেখে এমন সংস্থার প্ল্যানেট ল্যাবস ইনকর্পোরেটেডের গবেষকদের বক্তব্য দেওয়া হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, উপগ্রহ থেকে নেওয়া ছবিতে দেখা গিয়েছে যে সিনপো বন্দরে নতুন ডুবোজাহাজের কাঠামো বানানোর তৎপরতা চলছে। উত্তর কোরিয়ার প্রচলিত সাবমেরিনের কাঠামোর চেয়ে এটি আকারে অনেক বড়। ফলে এই কাঠামো হয়ত উত্তর কোরিয়ার সাবমেরিন থেকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়ার জন্য ব্যবহার হবে বলে একজন প্রবীণ গবেষক মনে করছেন।