পিয়ংইয়ংঃ নতুন করে ফের ক্রুজ মিসাইল বানাচ্ছে উত্তর কোরিয়া।  যে মিসাইলে চোখের পলকে ধ্বংস হয়ে যাবে শত্রুপক্ষের জাহাজ।

এই মিসাইলের পরীক্ষার পরেই উত্তর কোরিয়ার তরফে জানানো হয়েছে, ভূমি থেকে জাহাজ লক্ষ্য করে ছোঁড়ার উপযোগী নতুন ধরণের ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করেছে উত্তর কোরিয়া। এর পাল্লা দেশটির অস্ত্র ভাণ্ডারে একই শ্রেণির যে ক্ষেপণাস্ত্র আছে তার চেয়ে বেশি বলে জানানো হয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার সরকারি বার্তা সংস্থা কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি বা কেসিএনএ এর খবরে বলা হয়েছে, নতুন ধরণের ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে শক্তিশালী ভাবে হামলা চালানো যাবে।

অর্থাৎ উত্তর কোরিয়ার জন্য হুমকি যুদ্ধজাহাজ বহরের ওপর চাইলেই হামলা চালানো যাবে বলেও এতে উল্লেখ করা হয়।  কেসিএনএ বলেছে, কোরিয়ার পূর্ব সাগরে পরীক্ষা চালানোর সময়ে ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ভাসমান লক্ষ্যবস্তু সঠিক ভাবে নির্ণয় করতে এবং আঘাত হানতে পারে।

প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যে দক্ষিণ কোরিয়ার উপকূলে ঘাঁটি তৈরি করে রয়েছে মার্কিন সাবমেরিন।  আর এরপরেই এই ক্রুজ মিসাইলের পরীক্ষা করল পিয়ংইয়ং।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।