মস্কো: আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্ক দানা বাঁধেনি৷ তাই বিকল্পের খোঁজে রাশিয়া মুখী উত্তর কোরিয়া প্রধান কিম জং উন৷ বৃহস্পতিবার সকালে সম্পর্কের নয়া রসায়ন দেখল দুনিয়া৷ হাসিমুখে দুই রাষ্ট্রনায়কের ছবি এখন ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়৷

উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্রের কার্যকলাপ টিকিয়ে রাখার প্রতিশ্রুতি আদায়ই লক্ষ্য কিমের৷ অন্যদিকে আমেরিকার সঙ্গে ক্ষমতার মেরুকরণের যুদ্ধে দল ভারি করাই লক্ষ্য রাশিয়ার৷ তবে উত্তর কোরিয়ার দাবি কতটা মানবে মস্কো, তা নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা৷

আরও পড়ুন : ফের বিস্ফোরণ শ্রীলঙ্কায়, শোনা গেল কান ফাটানো আওয়াজ

বুধবার হাসিমুখের কিম নামেন ভ্লাদিভস্তক স্টেশন৷ চির চেনা ভঙ্গিমায় সশস্ত্র ট্রেন নিয়ে কিম রাশিয়ায় পৌঁছন৷ তাঁকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন রাশিয়া প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্তারা৷ তবে পুতিনকে সেখানে দেখা যায়নি৷ কিম মুখে যাই বলুন, পরোক্ষে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে বার্তা দেওয়াই এই সফরের প্রধান উদ্দ্যেশ্য, সেটা বলাই বাহুল্য৷ তবে বুধবার দেখা না করলেও, বৃহস্পতিবার সকালে দুই দেশের রাষ্ট্রনায়কদের সাক্ষাতে উষ্ণতার অভাব ছিল না৷

দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের পরিকাঠামো তৈরিতে রাশিয়ার সাহায্য প্রয়োজন বলেই মনে করছেন কিম৷ স্টেট মিডিয়া কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি জানিয়ে ছিল, খুব তাড়াতাড়ি রাশিয়া সফরে যাবেন কিম৷ তবে এখনও তারিখ নির্দিষ্ট করা হয়নি৷ তাই তখন জল্পনা ছিল পুতিন-কিম বৈঠক এপ্রিল মাসের শেষে হতে চলেছে৷

আরও পড়ুন : মেক্সিকো সীমান্ত বন্ধের হুমকি ট্রাম্পের, মোতায়েন আরও সেনা

উল্লেখ্য স্টেট মিডিয়ার সূত্র অনুযায়ী কিম জংয়ের ডানহাত ও মার্কিন সফরের অন্যতম সঙ্গী কিম চ্যাং সোনকে রবিবার রাশিয়ার ভ্লাডিভোস্তক এলাকায় দেখা গিয়েছিল৷ তার এই ঝটিতি রাশিয়া সফরের পর মনে করা হচ্ছিল কিম-পুতিন বৈঠক হতে পারে এপ্রিলের ২৪-২৫ তারিখ৷