ওয়াশিংটন:  কোরীয় যুদ্ধের সময় নিখোঁজ ২০০ মার্কিন সেনার দেহাবশেষ উত্তর কোরিয়া ফেরত দিয়েছে। এমনটাই জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার এই সমস্ত দেহাবশেষ ফেরত দেওয়া হয়েছে বলে মিনেসোটার ডুলুশে এক জনসভায় উপস্থিত সমর্থকদের জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তবে ট্রাম্প একথা জানালেও দেশটির সামরিক কর্তৃপক্ষ এই সম্পর্কে কোনও তথ্য জানায়নি।

সমর্থকদের উদ্দেশ্যে ট্রাম্প বলেছেন, “আমাদের নিহত মহান বীরদের ফিরে পেয়েছি আমরা, আজ তাদের অবশেষ ফেরত পাঠানো হয়েছে, ইতোমধ্যেই ফেরত পাঠানো ২০০ জনকে পেয়েছি।” মার্কিন এক আধিকারিক জানিয়েছেন, আসছে দিনগুলোতে উত্তর কোরিয়া দক্ষিণ কোরিয়ায় রাষ্ট্রসংঘ কমান্ডের কাছে ‘উল্লেখযোগ্য সংখ্যক’ দেহবশেষ হস্তান্তর করবে, এরপর সেগুলো হাওয়াইয়ের হাইকাম বিমান ঘাঁটিতে পাঠানো হবে।

ট্রাম্প গত সপ্তাহে সিঙ্গাপুরে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে এক ঐতিহাসিক বৈঠকে মিলিত হয়েছিলেন। ওই বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানিয়েছিলেন, কোরীয় যুদ্ধে নিহত মার্কিন সৈন্যদের দেহাবশেষ ফেরত দিতে রাজি হয়েছেন কিম। মার্কিন সামরিক বাহিনীর তথ্যানুযায়ী, ১৯৫০-১৯৫৩ সালের কোরীয় যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় সাত হাজার ৭০০ সেনা নিখোঁজ হয়েছিল। পেন্টাগনের তথ্যানুযায়ী, অতীতে উত্তর কোরিয়ার আধিকারিকরা ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তাদের কাছে প্রায় ২০০ জন মার্কিন সেনার দেহাবশেষ আছে। ওই যুদ্ধে ৩৬ হাজার ৫০০ জন মার্কিন সেনা নিহত হয়েছিল।