ওয়াশিংটনঃ  পরমাণু হামলা চালিয়ে আমেরিকার কোটি কোটি মানুষ মেরে ফেলতে পারবে উত্তর কোরিয়া।  সম্প্রতি এমনটাই চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন দুই উচ্চপদস্থ মার্কিন গোয়েন্দা আধিকারিক।  তাঁরা বলেছেন, এরই মধ্যে আমেরিকার মূল ভূখণ্ডে বড় মাপের পরমাণু হামলা উপযোগী প্রযুক্তি অর্জন করছে পিয়ংইয়ং।  আর তা যে কোনও সময়ে হামলা চালালে কয়েক কোটি মার্কিন নাগরিকের মৃত্যু হবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছে আমেরিকা।

দ্যা হিলে প্রকাশিত ‘হাউ নর্থ কোরিয়া কুড কিল ৯০ পার্সেন্ট অব আমেরিকানস’ শীর্ষক এক রিপোর্টে এমনটাই চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ’র প্রাক্তন কর্তা জেমস উলসে এবং মার্কিন কংগ্রেসের এএমপি কমিশনের প্রধান পিটার ভিনসেন্ট প্রাই।  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে বিদ্যুৎ-চৌম্বকীয় স্পন্দন বা ইএমপি হুমকি যাচাই করা এবং তা ঠেকানোর ব্যবস্থা নেওয়ার দায়িত্ব এই কমিটির ওপর বর্তিয়েছে।

উত্তর কোরিয়া পরমাণু হামলা চালাতে পারবে না বলে মিথ্যা আশ্বাস মার্কিন জনগণকে দেওয়া হয়েছে বলে এই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে।  পরমাণু বোমাকে ক্ষেপণাস্ত্রে  স্থাপনের মতো  ছোট করার প্রযুক্তি অর্জনের নমুনা দেখাতে পারে নি উত্তর কোরিয়া।  কিংবা মার্কিন নগরগুলোতে হামলার উপযোগী আন্তমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র বা আইসিবিএম এখনো পিয়ংইয়ং তৈরি করতে পারে নি বলে যে সব খবর দেওয়া হয়েছে তাকে নিবন্ধে মিথ্যা আশ্বাস বলা হয়েছে।

উলসে এবং প্রাই আরও রিপোর্টে বলেছেন, সিআইএ’র পূর্ব এশিয়ার শীর্ষ বিশ্লেষক উত্তর কোরিয়া সম্পর্কে একটি বিশ্লেষণ করেছিল ২০০৮ সালে।  এতে বলা হয়েছিল, ক্ষেপণাস্ত্র বসানোর জন্য পরমাণু বোমাকে  সফল ভাবে ছোট করতে পেরেছে পিয়ংইয়ং।  এরপর ২০১১ এবং ২০১৫ সালে প্রায় একই দাবি করেছে পৃথক পৃথক মার্কিন সংস্থা।  উত্তর কোরিয়ার সফল উপগ্রহ উৎক্ষেপণ করা এবং কথিত হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষার বিষয় তুলে ধরা হয় রিপোর্টে।  এতে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলা হয়েছে, আমেরিকায় পুরোমাত্রায় গোলযোগ সৃষ্টির জন্য  যা কিছু প্রয়োজন তার সবই আছে উত্তর কোরিয়ার ।