ওয়াশিংটন: উত্তর কোরিয়ার উপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করল রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। এতে উত্তর কোরিয়ার অর্থনীতি জোর ধাক্কা খাবে বলে মনে করা হচ্ছে। নিরাপত্তা পরিষদ সর্বসম্মতিক্রমে নতুন করে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে।

পিয়ংইয়ং পরপর ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালানোর পর দেশটির বিরুদ্ধে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হল।

শুক্রবার রাতে নিরাপত্তা পরিষদে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তাব ১৫-০ ভোটে পাস হয়। এই নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে উত্তর কোরিয়ার পরিশোধিত তেল আমদানি শতকরা ৯০ ভাগ পর্যন্ত আটকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এখন থেকে উত্তর কোরিয়া সারা বছরে মাত্র পাঁচ লক্ষ ব্যারেল পরিশোধিত জ্বালানি আমদানি করতে পারবে। সেইসঙ্গে উত্তর কোরিয়ায় অপরিশোধিত তেল রফতানির ওপরও সীমাবদ্ধতা আরোপ করা হয়েছে। এবার থেকে বছরে সর্বোচ্চ ৪০ লক্ষ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল রফতানি করা যাবে। এছাড়া খাবার, গাড়ি, মেশিনারি রফতানিতেও জারি হয়েছে নিষেধাজ্ঞা।

গত ২৯ নভেম্বর উত্তর কোরিয়া শেষবার ব্যালিস্টিক মিসাইল উৎক্ষেপণ করে। পিয়ংইয়ং জানায়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডের সব স্থানে এই ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে আঘাত হানা সম্ভব।

এই সিদ্ধান্তে কথা ট্যুইট করে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। তিনি ট্যুইট করে জানান, উত্তর কোরিয়ার উপর অতিরিক্ত নিষেধাজ্ঞা জারি করার সমর্থনে ভোট পড়েছে ১৫-০। তিনি উল্লেখ করেছেন, ‘বিশ্ব শান্তি চায়, মৃত্যু নয়।’