পিয়ং ইয়ং-সিওল -টোকিও: সাত সকালেই কিম উনের লম্ফ ঝম্প শুরু৷ চার চারটে মিসাইল ততক্ষণে ঢুকে পড়েছে জাপান সাগর অঞ্চলে৷ উত্তর কোরিয়ার এই ক্ষেপণাস্ত্রগুলি আছড়ে পড়েছে নীল জলে৷ এরপরেই জাপান জুড়ে হই চই পড়ে যায়৷ প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে দাবি করেছেন প্রতিটি ক্ষেপণাস্ত্র জাপানের বিশেষ অর্থনৈতিক এলাকার মধ্যে আছড়ে পড়েছে৷ টোকিও-পিয়ং ইয়ং সম্পর্কের গরম হাওয়ায় ফের উত্তপ্ত প্রাচ্যের রাজনীতি৷ এতে আলোড়িত আন্তর্জাতিক মহল৷ উত্তর কোরিয়ার এই চারটি ক্ষেপণাস্ত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে আঘাত করার ক্ষমতা রাখে৷

উত্তর কোরিয়ার সরকার নিয়ন্ত্রিত সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে, স্থানীয় সময় সোমবার সকাল ৭টা ৩৬ মিনিটে ৪টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়। প্রত্যাশিতভাবে এরপরেই বিবৃতি দেয় দক্ষিণ কোরিয়া৷ সিওল থেকে সম্প্রচারিত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্ট, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে চিন সীমান্তবর্তী এলাকা তংচ্যাং রি অঞ্চল থেকে এই ক্ষেপণাস্ত্রগুলি নিক্ষেপ করা হয়।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, কোরীয় উপদ্বীপে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে চলতে থাকা যৌথ সামরিক মহড়ার জবাবেই মিসাইল ছুঁড়েছে উত্তর কোরিয়া৷ মহড়া বন্ধের জন্য গত শুক্রবার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন উত্তর কোরিয়ার সর্বময় শাসক কিম জং উন৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ