শিলিগুড়ি : হেমতাবাদের বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের মৃত্যুর ঘটনায় ডাক দেওয়া বনধ সফল করতে সকাল থেকেই রাস্তায় নেমে পড়েছে বিজেপি। কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে জোর করে সরকারি বাস আটকানো হয়েছে বলে খবর মিলছে। মালদহে আবার সকাল থেকেই বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন বিজেপি নেতাকর্মীরা। উত্তরবঙ্গের অধিকাংশ জায়গায় বন্ধ দোকানপাট। শুনশান রাস্তাঘাট।

কোচবিহারে মঙ্গলবার সকাল ছ’টার আগেই বনধের সমর্থনে পিকেটিং শুরু করে বিজেপি। সাড়ে ছ’টা নাগাদ জেলা সভাপতি মালতী রাভার নেতৃত্বে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার কেন্দ্রীয় টার্মিনাসে সরকারি বাস আটকান জেলা গেরুয়া শিবিরের নেতাকর্মীরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে কোতোয়ালি থানার পুলিশ। তাদের সঙ্গে বিজেপি কর্মীদের ধস্তাধস্তি হয়। ১৫ জনকে বিজেপি নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়াও জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আরও ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জেলায় বনধের মোটামুটি প্রভাব পড়েছে। গোলমালের আশঙ্কায় ভবানীগঞ্জ-সহ শহরের বড় বড় বাজারগুলি বন্ধ রয়েছে। রাস্তাঘাট অন্যদিনের তুলনায় ফাঁকা। বেসরকারি বাস এবং টোটো চলাচল পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। সরকারি বাস চললেও তাতে যাত্রীর তেমন দেখা মিলছে না। তারইমধ্যে কোচবিহারের ঘুঘুমারিতে বাসে ভাঙুচর চালান বিজেপি কর্মীরা। মাথাভাঙা থেকে কোচবিহার আসছিল বাসটি। সেই বাসে ভাঙচুর চালান বনধ সমর্থকরা।

আলিপুরদুয়ারে সকাল সাতটা নাগাদ সরকারি বাস আটকান বিজেপি কর্মীরা। উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার কর্মীদের সঙ্গে তাঁদের বচসা বাঁধে। মালদহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে এমনিতেই মালদহের একাংশের গত কয়েকদিন ধরে বাজার, দোকানপাট বন্ধ। তারইমধ্যে বনধের জেরে থমথমে জেলার একাংশ। মালদহ-নালাগোলা রাজ্য সড়কে গাড়ি আটকান বনধ সমর্থনকারীরা। পুরনো মালদহে রাস্তায় পিকেটিং করছে বিজেপি। আটকানো হচ্ছে বাস-গাড়ি। যদিও বিজেপির দাবি, দলীয় কর্মীরা সাধারণ মানুষদের বনধ সমর্থনের ‘অনুরোধ’ জানাচ্ছেন, গায়ের জোর ফলানো হয়নি। জলপাইগুড়ির ধূপগুড়িতে বনধের আংশিক প্রভাব পড়েছে। সকাল থেকেই মোটের উপর খোলা রয়েছে দোকানপাট। যদিও রাস্তায় হাতেগোনা বেসরকারি বাসের দেখা মিলছে। সরকারি বাস রাস্তায় নামলেও তা অন্যদিনের তুলনায় কিছুটা কম। এছাড়াও সকাল থেকেই শুনশান শিলিগুড়ি, রায়গঞ্জ, ইসলামপুরের মতো এলাকা। রাস্তায় কার্যত দেখা মিলছে না বাসের। বন্ধ দোকানপাট।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ