প্রতীতি ঘোষ, উত্তর ২৪ পরগনা: উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাট মহকুমা সুন্দরবন সংলগ্ন এলাকায় আছরে পড়তে পারে সাইক্লোন বুলবুল। যার ফলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে ওই অঞ্চলে। তাই শনিবার সকাল থেকেই সুপার সাইক্লোন বুলবুলের হাত থেকে সাধারণ মানুষকে বাঁচাতে প্রশাসনের তরফ থেকে মাইকিংয়ের মাধ্যমে সতর্ক করা হচ্ছে। এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা যাতে সব সময় নিজেদের প্রয়োজনীয় নথি পত্র ও গুরুত্বপূর্ণ কাগজ নিয়ে এলাকা ছাড়বার জন্য তৈরি থাকেন তার আবেদন জানিয়ে মাইকিং করে বারে বারে প্রচার করা হচ্ছে প্রশাসনের তরফ থেকে।

আবহাওয়া দফতরের সতর্কতা অনুযায়ী, সাইক্লোন বুলবুল উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাট মহকুমা সুন্দরবন সংলগ্ন এলাকায় আছরে পরলে কিভাবে তার মোকাবিলা করতে হবে ও সাধারন মানুষদের কি ভাবে এই পরিস্থিতি থেকে বাঁচানো যাবে। পাশাপাশি তাদের কিভাবে স্বস্তি দেওয়া যাবে তাই নিয়ে জেলা প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিরা এবং পুলিশ প্রশাসন গত দুই দিন ধরেই দফায় দফায় বৈঠক করেছেন। সেই অনুযায়ী শনিবার সকাল থেকেই জেলা প্রশাসন সব রকম প্রস্তুতি নিয়ে বুলবুল ঝড়ের মোকাবিলায় নেমে পড়েছেন তাঁরা।

শুধু তাই নয়, আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী ঝড়ের তাণ্ডবলীলা চলবে এই সমস্ত এলাকাতে। আর সেই কারণে এই সমস্ত এলাকার মানুষদের নিরাপদ দূরত্ব সরিয়ে নিয়ে যাওয়ারও প্রস্তুতিও শুরু করে দিয়েছেন প্রশাসনিক আধিকারিক। আর তাই জনসাধারনকেও মাইকিং করে বারবার যে কোন মুহূর্তে এই এলাকা ছেড়ে নিরাপদ স্থানে চলে যাবার জন্য প্রস্তুত থাকতে বলা হচ্ছে। উল্লেখ্য, ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে উত্তর ২৪ পরগণার সুন্দরবণ সংলগ্ন হিঙ্গলগঞ্জ এলাকার প্রায় ৩৪ হাজার মানুষ। পুলিশ প্রশাসন সূত্রে খবর ইতিমধ্যেই বসিরহাট মহকুমায় ১১৪ টি ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। সেই সব শিবিরে বহু স্থানীয় বাসিন্দাদের সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজ শুরু করে দিয়েছেন পুলিশ প্রশাসন।

জানা গিয়েছে, পুরো পরিস্থিতির উপর নজর রাখছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যে নবান্নে খোলা হয়েছে একটি কন্ট্রোল রুম। সেখানে বসে রাজ্যের পুরো পরিস্থিতির উপর নজর রাখছেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান। সেখান থেকে বসে জেলার আধিকারিকদের কাছে দফায় দফায় পরিস্থিতির খোঁজখবর নিচ্ছেন তিনি। শুধু খোঁজ নেওয়াই নয়, নির্দেশও দিচ্ছেন। প্রাণহানি কমাতে যত রকম ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন তাই নেওয়া হচ্ছে।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।