নয়াদিল্লি: পুলওয়ামায় জঙ্গি হানার ঘটনার ঘটনায় পাকিস্তানের যোগ স্পষ্ট। ঘটনার দিনই তা স্পষ্ট করেছে ভারত সরকার। কিন্তু কোনোরকম তথ্য প্রমাণ ছাড়া এই ঘটনার সঙ্গে পাকিস্তানের নাম জড়ানো মোটেই ঠিক নয়,বললেন পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী।

শনিবার ‘ইন্ডিয়া টুডে’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পাক মন্ত্রী দাবি করেন, “সবকিছুর জন্য পাকিস্তানকে দোষারোপ করা ভুল এবং ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করাই তাদের একমাত্র উদ্দেশ্য।” তিনি আরও বলেন , “জইশ-ই-মহম্মদ হল একটা নিষিদ্ধ প্রতিষ্ঠান। আমরা এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব এবং যা প্রয়োজন তাই করব।”

তাঁর দাবি, কাশ্মীর চূড়ান্ত সামরিক শক্তির ঘেরাটোপে থাকা জায়গা এবং তাই সেখানে শান্তি বজায় থাকার খুব কমই সম্ভবনা আছে। তিনি বলেন, “পাকিস্তানি জঙ্গি গোষ্ঠীগুলির বিরুদ্ধে করা ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং ভারত যদি চায় তাহলে আমরা তাদের সাহায্য করতে এগিয়ে আস্তে পারি।”

আরও পড়ুন: pulwamaattack: খেলার দুনিয়ায় পাকিস্তানকে ধাক্কা দিল ভারত

পুলওয়ামায় জঙ্গি হানার ঘটনার সঙ্গে পাকিস্তানের যোগের বিষয়টি ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ও সরকার স্পষ্ট করলেও, এই বক্তব্য সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে পাকিস্তান। এমনকি জঙ্গি গোষ্ঠীদের নিরাপদ আশ্রয় দেওয়ার জন্য সারা বিশ্ব ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা করেছে।

বিগত তিন দশকে জম্মু কাশ্মীরে প্রাণঘাতী জঙ্গি হানার মধ্যে শীর্ষে রয়েছে বৃহস্পতিবার পুলওয়ামায় ঘটে যাওয়া আত্মঘাতী হামলা। যে হামলা প্রাণ নিয়েছে প্রায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানের এবং আহত হয়েছেন আরও অনেকে। পাক মদত পুষ্ট জঙ্গি গোষ্ঠী এই হামলায় নিজেদের দায় স্বীকার করেছে।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের সেনা হাসপাতালে শুয়েই হামলার নির্দেশ দেয় মাসুদ আজহার

এই জঙ্গি গোষ্ঠী পাকিস্তানের উপর ভিত্তি করেই গড়ে উঠেছে। এবং এর নেতা মৌলানা মাসুদ আজহার সেখানেই বেড়ে উঠেছেন। প্রায়ই পাকিস্তানের সঙ্গে তাদের যোগাযোগের হদিস মেলে। এমনকি তাদের প্রধান ঘাঁটিও পাকিস্তানে।