নয়ডা: গ্রেফতার করা হল ভেঙে পড়া বহুতলের মালিককে। নির্মাণরত বিল্ডিং ভেঙে পড়ে দুইজনের মৃত্যুর পরের দিন পুলিশ গ্রেফতার করল ওই বহুতলের মালিককে।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টা নাগাদ সেক্টর ১১-এর এফ ব্লকের একটি তিনতলা বিল্ডিং ভেঙে পড়ে। পাঁচজন শ্রমিককে ওই ধ্বংসস্তূপ থেকে উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, উদ্ধার হওয়া ৫ জনের মধ্যে একজন কনট্রাক্টর ও একজন কাঠের মিস্ত্রি হাসপাতালে চিকিৎসা চলাকালীন অবস্থায় মারা যান। বাকিব ৩ জন এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

জেলা পুলিশ এক বিবৃতি জারি করে জানিয়েছে, এই ঘটনায় যুক্ত থাকার দায়ে রাজকুমার ভরদ্বওয়াজ নামে এক ৬৫ বছরের ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি ওই বিল্ডিং-এর মালিক বলে জানা গিয়েছে।

২৪ নম্বর সেক্টর থানায় ভরদ্বাজের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। ভারতীয় দণ্ডবিধির ধারায় অন্যের জীবনকে বা ব্যক্তিগত নিরাপত্তাকে বিপন্ন করার অভিযোগ আনা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, কেস এখনও চলছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বিষয়টি শোনেন এবং পুলিশ কমিশনার অলোক সিংকে উদ্ধার ও ত্রাণএর ব্যাপারে নির্দেশ করে ঘটনাস্থলে পাঠান।

দুর্ঘটনা ঘটার পরেই সেখানে হাজির হয় দমকল বিভাগ, দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনী ও বিপুল সংখ্যক পুলিশ। এরপরেই উদ্ধার করা হয় ওই পাঁচ আহতকে। তাঁদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২ জনের।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ