মুম্বই: ফের দেশজুড়ে বিজয়রথ ছোটালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ বুঝিয়ে দিলেন জাতীয় রাজনীতিতে তিনি অপ্রতিরোধ্য৷ তাঁর ক্যারিশ্মার সঙ্গে ম্যাচ করতে পারে এমন কোনও নেতা এই মুহূর্তে বিরোধী দলে নেই৷  শিবসেনার মতে, মোদীকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেন এমন কোনও নেতা আগামী ২৫ বছরেও উঠে আসতে পারবে না৷

বুথফেরত সমীক্ষার সঙ্গে লোকসভা ভোটের ফলাফল প্রায় মিলে গিয়েছে৷ চূড়ান্ত ফল এখনও ঘোষণা হয়নি৷ কিন্তু ট্রেন্ড বলছে, ‘ফির এক বার মোদী সরকার’৷ এই ট্রেন্ডই যে বজায় থাকবে তা মোটামুটি পরিস্কার৷ হয়তো দু’এক আসনের হেরফের হতে পারে৷

বিজেপির জয়ের কাণ্ডারি হিসাবে উঠে আসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নাম৷ সেনাপতি অমিত শাহের সঙ্গে মিলে দলকে জেতানোর দায়িত্ব নিজের কাধে তুলে নেন নমো৷ তাঁর ক্লান্ত পরিশ্রম ও অমিতের রণকৌশলে ভর করে বিজেপি এবার ৩০০ পার করেই ফেলেছে৷ তারপরেই মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ সহযোগী দলগুলি৷ বিজেপির দীর্ঘদিনের সঙ্গী শিবসেনা মোদীর স্তুতি করে জানিয়েছে, ‘গোটা দেশ মোদীময়’৷

ভোটের ফলাফল দেখে শিবসেনার সাংসদ সঞ্জয় রাউতের মতে, এনডিএ’র জয় বিরোধীদের গালে থাপ্পড় মেরেছে৷ ভোটের আগে বিরোধীরা রাফায়েল নিয়ে মোদীর বিরুদ্ধে অনেক বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে৷ সময় এসেছে সত্যিটাকে মেনে নেওয়ার৷ আর সত্যি এটাই যে মোদীর সমতুল্য কোনও নেতা এখন নেই৷ আজকের রায়ের পর পরিস্কার আগামী ২৫ বছর মোদীর বিকল্প কোনও নেতা উঠে আসবে না৷ তিনি আরও জানান, গোটা দেশ মোদীর নেতৃত্বের উপর ভরসা রেখেছে৷ তাঁর নেতৃত্বেই দেশ আগামী পাঁচ বছর বিকাশের পথে এগিয়ে যাবে৷

ট্রেন্ড বলছে ৪৮টি আসন বিশিষ্ট মহারাষ্ট্রে বিজেপি ও শিবসেনা যথাক্রমে ২৩ ও ১৮টি আসনে এগিয়ে৷ উল্লেখ্য, এই শিবসেনার সঙ্গে বিজেপির সম্পর্ক একসময় প্রায় তলানিতে গিয়ে ঠেকে৷ মাঝে শোনা যায়, এনডিএ শিবির থেকে বেরিয়ে আসতে পারে শিবসেনা৷ কিন্তু লোকসভা ভোটের আগে আগেই অমিত শাহ উদ্বভ ঠাকরের সঙ্গে দেখা করে পুরানো সম্পর্ক ঝালিয়ে নেওয়ার কাজ করেন৷ তাঁর দৌত্যেই ফের দু’দলের সম্পর্ক জোড়া লাগে৷