ঢাকাঃ  গানের অ্যালবামের প্রচারের লক্ষ্যে একের পর এক আপত্তিকর স্ট্যাটাস ফেসবুকে। বাংলাদেশের একাধিক জনপ্রিয় শিল্পীকে অপমান। ছাড়লেন না খোদ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও। সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে তীব্র বিতর্ক। আর সেই বিতর্কে পড়ে শেষমেশ বাংলাদেশের মানুষের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিলেন সঙ্গীত শিল্পী নোবেল। যদিও এর আগে সোশ্যাল মিডিয়াতে একের পর এক মন্তব্যের কারণে বাংলাদেশের র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ানের (র‍্যাব) এর কার্যালয়ে ডাকা হয়। এরপরেই নিজের কাজের জন্যে ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে নেন তিনি।

রবিবার ফেসবুক লাইভে এসে তিনি ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। বলেন, আমি মনে হয় একটু বেশি বেশি করে ফেলেছি। আমার ওপর অনেকে ক্ষিপ্ত হয়ে আছেন। আমি বারবার বলেছি এটা আমার গানের প্রমোশনের জন্য করেছি। আশা করি সবাই ফ্যামেলির সাথে সুন্দর ঈদ কাটাবেন। আবারও বলছি, সবাই আমাকে ক্ষমা করবেন, প্লিজ।

সম্প্রতি নোবেল ফেসবুকে এক পোস্টে লিখেছিলেন, দু-বছর আগে জন্ম নিয়েছি আপনাদের ভালবাসা নিয়ে। দু-বছরে ফ্লপ হিট গানের সংখ্যা দুই। তোমার মনের ভেতর – অনুপম রায় (National Award winner) আগুনপাখি – শান্তনু মৈত্র (National Award winner)।

তারপর তিনি লেখেন, ‘তোমাদের লেজেন্ড গত দশ বছর ধরে কয়টা ফ্লপ অথবা হিট রিলিজ করেছে কমেন্টস্ সেকশানে জানাও। থুক্কু বাংলাদেশে তো গত ১০ বছরে ভালো করে কেউ মিউজিকই করেনি। দাঁড়াও তোমার লেজেন্ডদের না হয় আমিই শিখাবো, কিভাবে ২০২০ সালে মিউজিক করতে হয়।’

এহেন ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ার পরেই তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন নোবেল। প্রথমে বিষয়টি পাত্তা না দিলেও শেষ পর্যন্ত ক্ষমা চাইলেন ‘সারেগামাপা’খ্যাত এই গায়ক। রবিবার বিকেলে নোবেল তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ তথ্য জানিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন।

তিনি জানান এসব ছিল তার ‘তামাশা’ নামের একটি গানের প্রচারের জন্য। নোবেল লিখেছেন ‘আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে র‌্যাব-২ এর মনির জামান ভাইয়ের কাছে লিখিত বক্তব্য পেশ করেছি। সকলকে ঈদের অগ্রিম শুভেচ্ছা এবং ‘তামাশা’ গানটি শোনার আমন্ত্রণ। পরে লাইভে এসে ক্ষমা চাইলেন তিনি। যদিও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রামণ করা নিয়ে কিছুই বলেননি নোবেল।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV