ঢাকা: জনবহুল এলাকা মিরপুরের গুরুত্বপূর্ণ পল্লবী থানার মধ্যেই বিস্ফোরণের পিছনে জঙ্গি হামলার কোনও সংযোগ নেই। এমনই জানিয়ে দিলেন বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। পরে ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার কৃষ্ণপদ রায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে একই কথা জানান।

বুধবার সকালে বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে পল্লবী থানা। এলাকাবাসী আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। রাজধানী ঢাকার অতি গুরুত্বপূর্ণ পল্লবী এলাকার এই ঘটনায় মোট ৫ জন জখম হন।

সম্প্রতি বাংলাদেশ জুড়ে কোরবানির ঈদের আগে বিভিন্ন থানায় হামলার সতর্কতা জারি হয়। তার পরেই এই বিস্ফোরণের ঘটনা স্বাভাবিকভাবেই চাঞ্চল্য ছড়ায়। পরে জানা যায়, ধৃত কয়েকজন ভাড়াটে খুনির সঙ্গে থাকা একটি মে়শিনের ভিতর বোমা ছিল।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, যাদের আটক করা হয়েছে তারা ডাকাত দলের সদস্য। তাদের কাছে থাকা কিছু একটার বিস্ফোরণ হয়েছে। তারপরও তদন্ত হবে। অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার কৃষ্ণপদ রায় পল্লবী থানা পরিদর্শন করেন।

তিনি জানান, যে তিনজনকে আমরা গ্রেফতার করেছি তারা কোনও জঙ্গি গ্রুপের সদস্য নয়। তাদের কাছে ওজন করার মেশিনের মতো বস্তু যা ছিল সেটার ভেতরেই এই এক্সপ্লোসিভগুলো ছিল। থানায় বিস্ফোরণের ঘটনায় জখম একজনের বাঁ হাতের ক্ষতবিক্ষত কব্জি কেটে বাদ দেওয়া হয়েছে। এমনই জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

অতিরিক্ত পুলিশ কমিনার কৃষ্ণপদ রায় আরও বলেছেন, ধৃতদের কাছে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়। একটি ডিভাইস উদ্ধার করা হয় যেটি ওয়েট মেশিনের মতো। ওই মেশিন পরে থানায় এনে রাখা হয়। তারপর বম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের এক্সপার্টদের খবর দেওয়া হয়। তারা যখন পর্যবেক্ষণ মেশিন নিয়ে আসছিল তখন থানার ভেতর একটি বিস্ফোরণ ঘটে।

বম্ব ডিসপোজাল ইউনিট এক্সপার্টরা ডিভাইসগুলো স্টাডি করার পর এক্সপ্লোসিভ সমৃদ্ধ দুটি ডিভাইস নিষ্ক্রিয় করেছে। এক্সপার্ট টিম এসে পৌঁছানোর পর তারা পুরো এলাকা সিকিউরড করে। এই ব্যাপারে আমরা তদন্ত করছি, আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা কাজ করছে। আমাদের কাউন্টার টেরোরিজম কাজ করছে।

তিনি বলেন, যেহেতু বোমা সদৃশ জিনিস পাওয়া গেছে। সেটা আসলেই এক্সপ্লোসিভ। এসব কেন, কোত্থেকে এলো, কী উদ্দেশ্যে এলো- সেটা নিয়ে আমাদের তদন্ত চলছে। যে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাদের পেছনে আর কারা সহযোগী ছিল তাদের খুঁজে বের করতে আমরা কাজ করছি।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।