মুম্বই: কার্যত বিনা পয়সায় জিও ফোনটি হাতে পাবেন বলে আশায় দিন গুনছেন তারাই এবার হয়তো হতাশ হবেন৷ কারণ এটা ঠিক মাসে ১৫৩ টাকার রিচার্জেই মিলবে জিও-র ফোর-জি ফোন। তাছাড়া হ্যান্ডসেটের জন্য প্রথমে দেড় হাজার টাকা জমা রাখতে হবে গ্রাহককে যদিও তিন বছর পর তা ফেরত পাওয়া যাবে। এটা তো জানা ছিল বলবেন তো৷ হ্যা তা ঠিক তবে ওই নয়া ফোনে মিলবে না হোয়াটসঅ্যাপ করার সুবিধা।

আরও পড়ুন: কোথায় পাবেন? কত দাম? জিও স্মার্টফোন নিয়ে সব প্রশ্নের উত্তর

গত শুক্রবার ২১ জুলাই এই জিও-র হ্যান্ডসেটটির কথা ঘোষণা করেছিলেন রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের বার্ষিক সাধারণ সভায় সংস্থার কর্ণধার মুকেশ অম্বানী। তখন তিনি জানিয়েছিলেন, মাসে মাত্র ১৫৩ টাকা রিচার্জেই এই ফোনে ফোর-জি স্পিডে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে। কিন্তু পরিষেবা পাওয়ার ক্ষেত্রে একটা সমস্যা হবে যারা হোয়াটসঅ্যাপ ছাড়া একেবারেই চলতে চান না৷ সেটা অফিসের কাজের জন্য অথবা বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে আড্ডার জন্য৷

আরও পড়ুন: শূন্য (০) টাকাতেই স্মার্টফোন দেওয়ার ঘোষণা করল জিও

সেক্ষেত্রে সারাক্ষণ যাঁরা মোবাইল ফোন নিয়ে মেতে থাকেন তাঁদের অনেকেই এই নতুন জিও ফোন নিলে হতাশ হবেন। জিও ফোনে এই অ্যাপ থাকবে না। তবে দুধের স্বাধ ঘোলে মেটাতে পাওয়া যাবে জিও চ্যাট নামে অ্যাপে যার সাহায্যে কথাবার্তা চালাতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। প্রসঙ্গত, পরিসংখ্যান বলছে এ দেশের ২০ কোটি মানুষ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন। ফলে নতুন ফোনে তা না থাকলে অসুবিধা তো হবেই৷ কিন্তু তা জেনেও মুকেশ অম্বানীর কেন এমন সিদ্ধান্ত? কোন কোন মহলের ধারণা ধীরুভাইয়ের পুত্র হোয়াটসঅ্যাপকে টক্কর দেওয়ার ছক কষছেন৷