লন্ডন: বিশ্বকাপ চলাকালীন স্ত্রী এবং পরিবারকে পাশে পাবেন না ক্রিকেটাররা। সাফ জানিয়ে দিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। বিশ্বকাপের আগে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে অনুমতি থাকলেও মেগা ইভেন্টে ‘ওয়্যাগ’ ইস্যুতে কঠোর সিদ্ধান্ত নিল প্রতিবেশী রাষ্ট্রের ক্রিকেট বোর্ড।

৩০ মে থেকে ইংল্যান্ড-ওয়েলসের মাটিতে শুরু হতে চলা মেগা ইভেন্টে ক্রিকেটারদের ফোকাস ধরে রাখতে বদ্ধপরিকর সেদেশের ক্রিকেট বোর্ড। তাই বিশ্বকাপ চলাকালীন সময়ে টিম হোটেলে স্ত্রী-পরিবারের সঙ্গে ক্রিকেটারদের থাকার বিষয়ে অনুমতি দিল না পিসিবি। তবে পিসিবি’র তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ক্রিকেটাররা চাইলে নিজ-দায়িত্বে স্ত্রী-পরিবারের থাকার বিষয়টি বন্দোবস্ত করতে পারেন।

আরও পড়ুন: শনিবার বিশ্বকাপ প্রস্তুতিতে নামছে ভারত, পরীক্ষার মুখে ‘চার নম্বর’

১৯৯২ পর বিশ্ব-ক্রিকেটের সেরা মঞ্চে আর সাফল্যের মুখ দেখেনি পাকিস্তান। ২০১৭ বিলেতের মাটিতে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয় বিশ্বকাপে প্রত্যাশী করে তুলেছে তাদের। এমনকি বিশেষজ্ঞদের কারও কারও মতে সম্ভাব্য চ্যাম্পিয়ন হিসেবেও উঠে আসছে পাকিস্তানের নাম। এহেন পরিস্থিতিতে পিসিবি চাইছে ক্রিকেটারদের মনোসংযোগে যাতে ব্যাঘাত না ঘটে। সেকারণেই কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হল তারা।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপ ফটোসেশনে কাপ্তানরা, কোহলিকে দলে নিতে চান বাংলাদেশ অধিনায়ক

পাকিস্তানের মত কঠোর না হলেও বিশ্বকাপ চলাকালীন ‘ওয়্যাগ’ ইস্যুতে দৃষ্টান্তমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বিসিসিআইও। সেক্ষেত্রে টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার ২০ দিন পর ভারতীয় ক্রিকেটারদের সঙ্গে যোগ দিতে পারবে স্ত্রী ও পরিবার, তাই মাত্র ১৫ দিনের জন্য।