file image

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: পরিবহণ মন্ত্রী ভাড়া বৃদ্ধির অনুমোদন খারিজ করে দিতেই বেঁকে বসলেন বেসরকারি বাস সংগঠনগুলি। তাদের সাফ কথা, ২০ জন যাত্রী নিয়ে পুরোনো ভাড়ায় বাস চালানো সম্ভব নয়।
বেসরকারি বাস বাড়তি ভাড়া নিতে পারবে না। শনিবার একথা স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

তিনি বলেন, “রাজ্য সরকার ভাড়া বাড়ানোর পক্ষে নয়। কারণ লকডাউনের জেরে মানুষ এমনিতেই পর্যুদস্ত। বেসরকারি বাস মালিকরা ভাড়া না বাড়ালে অন্য সবকিছুতে তাদের সাহায্য করবে সরকার।”

কিন্তু সরকারের কোনও কথা শুনতে চাইছেন না বাস সংগঠনগুলি। বেসরকারি বাস মালিক সংগঠন জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেট-এর তরফে পাল্টা জানিয়ে দিয়েছেন, ভাড়া না বাড়ালে ২০ জন যাত্রী নিয়ে রাস্তায় বাস বের করা সম্ভব নয়।

ওয়েষ্ট বেঙ্গল বাস এণ্ড মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক প্রদীপ নারায়ণ বোস বলেন, “একদিন রাস্তায় বাস বেরোলে চার হাজার টাকা ব্যয় আর ১৮০০ টাকা আয়। আয়-ব্যায়ের হিসেব করেই মুখ্যমন্ত্রীকে বলা হয়েছিল। কিন্তু আজ পরিবহণ মন্ত্রীর এই ঘোষণার পর আমাদের পক্ষে আর বাস চালানো সম্ভব নয়।”এব্যাপারে আগামীকাল একটি বৈঠক ডেকেছেন তাঁরা।

তবে পরিবহণ মন্ত্রী এদিন বলেছেন, “সোমবার থেকে সরকারি বাসের সংখ্যা বাড়বে। সোমবার থেকে আধঘণ্টা অন্তর সরকারি বাস। পরীক্ষামূলকভাবে ১৫টি রুটে চলছে সরকারি বাস। কেউ সহযোগিতা না করলেও সমস্যা হবে না।”

উল্লেখ্য, রাজ্যে গ্রিন জোনগুলিতে ২০ জন যাত্রী নিয়ে বেসরকারি বাস চলতে পারবে বলে জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ কিন্তু বেসরকারি বাস মালিকরা জানান, কম যাত্রী নিয়ে তাঁরা বাস চালাতে পারবেন না৷ এর পরই রাজ্য সরকারের তরফে বেসরকারি বাস মালিক সংগঠনগুলিকে ভাড়া ঠিক করতে বলা হয়৷

এরপরই বেসরকারি বাসে উঠলেই ন্যূনতম ২০ টাকা ভাড়া দাবি করে বাস সংগঠনগুলি৷ মিনিবাসগুলির জন্য আরও বেশি ভাড়া দাবি করা হয়৷ বিপুল এই ভাড়া বৃদ্ধির দাবি খারিজ করে দিল সরকার৷ তবে বাস মালিকরা বাস না নামালে সরকার জোর করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন পরিবহণমন্ত্রী৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV