শ্রীনগর: শুক্রবার রাত থেকে শুরু হয়েছে বরফ ঝড়া৷ ঝড়ে চলেছে অনবরত৷ জম্মু কাশ্মীরের বেশ কিছু জায়গায় অতি ভারি বরফ বর্ষণ হয়ে চলেছে৷ তাপমাত্রা অনেকটাই নেমেছে নীচে৷ তবে সবথেকে বড় সমস্যা এখন পাওয়ার কাট৷

গোটা জম্মু কাশ্মীর জুড়ে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন৷ এদিকে রাস্তায় পুরু বরফ জমে যাওয়ায় বেশ কিছু রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ৷ উপত্যকা এখন মূল ভূখণ্ড থেকে খানিকটা বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে বলাই যায়৷ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পুরোপুরি বন্ধ৷ এর ফলে সমতলের সঙ্গে উপত্যকার যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গিয়েছে৷

সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত আপেল৷ আপেল চাষীদের মাথায় হাত পড়েছে৷ এই মরসুমেই শীতের আপেল ঘরে তোলার কথা৷ কিন্তু মরসুমের প্রথম বরফরে আস্তরণ ঢাকা দিয়ে দিয়েছে আপেল গাছগুলি৷ গাছে ফলে থাকা আপেলের ওপর পুরু বরফ জমে থাকলে ক্ষতি হবে আপেলের৷ সেই নিয়েই চিন্তিত আপেল চাষীরা৷

জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা রবিবার টুইট করে জানিয়েছেন “ভয়ঙ্কর খারাপ অবস্থার মধ্যে পড়েছে আপেল গাছ৷ এর ফলে বড়সড় আর্থিক সমস্যা হতে চলেছে৷” আপেল চাষীদের সাহায্যের জন্য তিনি রাজ্যপালের কাছে অনুরোধ করেছেন৷

আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে “গত দু’দশকে এটা চতুর্থ বার নভেম্বরের শুরুতেই বরফের দেখা মিলল৷ ২০০৯, ২০০৮ ও ২০০৪ এ নভেম্বরে বরফ বৃষ্টি হয়েছিল৷”

ভারি বরফ বৃষ্টির ফলে বান্দিপোরার গুরেজের কিছু জায়গায় ধ্বস নামারও খবর মিলেছে৷ ট্রাফিক ডিপার্টমেন্টের তরফে জানানো হয়েছে শ্রীনগর জম্মু জাতীয় সড়ক যা অন্যান্য রাজ্যের সঙ্গে উপত্যকাকে জুড়েছে ও বেশ কিছু সড়ক যা জম্মু কাশ্মীর কে জুড়েছে তা আপাতত বন্ধ৷ ভারি বরফপাতে শ্রীনগর ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টেও প্রভাব পড়েছে৷