ঢাকা: জাতীয় নির্বাচনে সময় নাশকতার সম্ভাবনা এড়াতে বড়সড় পদক্ষেপ বাংলাদেশ সরকারের৷ জাতীয় নির্বাচন হতে যাচ্ছে আগামী ৩০ ডিসেম্বর৷ তারপরেই বছর শেষের উৎসবের আবহ ও নতুন বছর শুরুর মুহূর্তের অনুষ্ঠান বাতিল করা হল৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এই কথা জানালেন৷

ইংরেজি নতুন বছরের প্রথম প্রহরে সব ধরনের উদযাপন নিষিদ্ধ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “থার্টি ফার্স্টে কোথাও কোনও অনুষ্ঠান আয়োজন করে সেখানে ডিজে পার্টি করা, আতশবাজি কিংবা পটকা ফোটানো যাবে না।

পড়ুন: পদ্মাপারে ভোট: বইয়ের পাতায় মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া 

আন্তর্জাতিক মানের হোটেলগুলো ছাড়া অন্যান্য বারগুলোতে ৩১ ডিসেম্বর বিকাল থেকে পরদিন বিকাল পর্যন্ত বিক্রি বন্ধ থাকবে। এই সময়ের মধ্যে বৈধ আগ্নেয়াস্ত্র নিয়েও ঘোরাঘুরি করা যাবে না।

পড়ুন: পদ্মাপারে ভোট: জরিপে জয় দেখেছে আওয়ামী লীগ

এছাড়া ২৫ ডিসেম্বর দেশের অন্যতম সংখ্যালঘু খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের বড় ধর্মীয় উৎসব বড়দিন উপলক্ষে থাকছে কড়া নিরাপত্তা৷ বাড়ির ছাদেও থার্টি ফাস্ট নাইটের অনুষ্ঠান করা যাবে না বলেই জানানো হয়েছে৷