স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: নেই স্বস্তি। দিন যতই যাচ্ছে ততই বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। মৃত্যু মিছিলও বাড়ছে হু-হু করে। প্রতিমুহূর্তে কঠিন পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।

দেশ তথা রাজ্যের এমন পরিস্থিতিতে খাবারের সমস্যা যাতে না হয়, সেজন্য বেশিরভাগ সামর্থ্যবান লোকেরা প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী কিনে রেখেছেন। কিন্তু, যারা ভবঘুরে মানুষ, যাদের টাকা পয়সা কোনও কিছুই নেই। লোকের দয়া দাক্ষিণ্যে যাদের পেট চলে, তাদের এখন কী হবে? কীভাবে বাঁচবে ওরা? কোথায় পাবে বেঁচে থাকার রসদ।

কিন্তু কথায় বলে, যার কেউ নেই, ‘তার ভগবান আছেন।’ হ্যা ঠিক তাই। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা এই সব ভবঘুরেদের জন্যও রয়েছেন কিছু মানুষরুপি ভগবান।

ঠিক যেমন পূর্ব মেদিনীপুর জেলার এগরা-২ ব্লকের মঞ্জুশ্রী গ্রাম পঞ্চায়েতের দাউদপুরে রয়েছে নিউ রুপতীর্থ যুব সংঘ। এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা নিজেদের উদ্যোগে এলাকার আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে থাকা ভবঘুরে মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের জন্য দুমুঠো খাওয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছে। পাশাপাশি, দাউদপুর, ভাটদা, ছত্রী, আড়িয়াপোতা, আলিপুর প্রভৃতি গ্রামে বাড়ি বাড়ি গিয়ে মাস্ক ও সাবান বিলি করেন এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্মীরা।

জানা গিয়েছে, এদিন তাঁরা কয়েক হাজার মাস্ক ও সাবান বিতরণ করেন। এর সাথে একটি করে করোনা সচেতনতার লিফলেটও দেওয়া হয় এলাকার বাসিন্দাদের। আয়োজক সংস্থার পক্ষ থেকে মোট পাঁচটি দলে ভাগ হয়ে এই বিতরণের কাজটি চলছে বলে জানান সংঘের সভাপতি দেবাশিষ দাস।

তবে ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার এহেন উদ্যোগে খুবই খুশি এলাকাবাসী। উপস্থিত ছিলেন, এগরা-২ পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যা স্বপ্না দাস, সংস্থার সম্পাদক সত্যজিৎ গিরি, গোপাল দাস, স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য নিত্যানন্দ সাউ, পান্নালাল পাত্র, গৌতম জানা প্রমুখ।