প্যারিস: আন্তর্জাতিক মহলে বারবার ছুটে গিয়েও খুব একটা লাভ হল না পাকিস্তানের। কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতের পাশেই দাঁড়াল ফ্রান্স। ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাকরঁ বললেন, ‘শান্তি বজায় থাকে, এমন যে কোনও পদক্ষেপকেই সমর্থন করবে ফ্রান্স।’

ফ্রান্সে পৌঁছেই ফরাসি প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দু’জনের অন্তত দেড় ঘণ্টার কথোপকথন হয়। তারপরই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ইমানুয়েল মাকরঁ-র বলেন, ”প্রধানমন্ত্রী মোদী কাশ্মীর এবং কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে আমাকে জানিয়েছেন। আমি বলেছি, ভারত এবং পাকিস্তানকে দ্বিপাক্ষিক স্তরে আলোচনা করে সমাধান সূত্র বার করতে হবে। এখানে তৃতীয় পক্ষের কোনও জায়গা নেই।”

তাঁর মতে, উপত্যকায় ওই অঞ্চলে উত্তেজনা তৈরিও করাও ঠিক হবে না। তাঁর কথায়, ”কাশ্মীরে শান্তি বজায় রাখা জরুরি। আমরা চাই, শান্তি এবং আলোচনা।” তিনি কয়েকদিনে মধ্যেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন।

মোদী জানিয়েছেন, বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে। তিনি জানান, আগামী মাসে ফ্রান্স প্রথম দফায় ৩৬টি রাফাল যুদ্ধবিমান ভারতের হতে তুলে দেবে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ২২-২৬ অগস্ট পর্যন্ত বিদেশ সফর করবেন৷ ২৩ অগস্টও মোদী ফ্রান্সে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসবেন৷ ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী এডওয়ার্ড ফিলিপের সঙ্গেও কথা হবে তাঁর৷

সেখানের ভারতীয়দের সঙ্গেও তিনি কথা বলবেন বলে জানা গিয়েছে৷ ১৯৫০ এবং ১৯৬০ সালে এয়ার ইন্ডিয়া বিমান দুর্ঘটনায় যাঁরা প্রাণ হারিয়েছিলেন তাঁদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে মেমোরিয়াল করবেন বলেও জানা যায়৷ ২৫-২৬ অগস্ট মোদী G7 সামিটে অংশগ্রহণ করবেন৷