নয়াদিল্লি: দেশ জুড়ে পর্ন ওয়েবসাইটে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কেন্দ্র। বৃহস্পতিবার অন্তত ৮২৭টি ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। উত্তরাখণ্ড হাই কোর্টের রায় অনুযায়ী সব টেলিকম সংস্থাগুলিকে পর্নোগ্রাফিক কনটেন্ট সরিয়ে নিতে বলা হয়।

৮২৭টি ওয়েবসাইট বন্ধ করার নির্দেশ দেয় কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রক। সঙ্গে সঙ্গে সবকটি ওয়েবসাইট ব্লক করে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয় টেলিকম সংস্থাগুলিকে। এই নির্দেশিকা জারি ওয়ার পরই পর্নোগ্রাফিক কনটেন্ট তুলে নেয় রিলায়েন্স জিও। বেশ কিছু ওয়েবসাইট তারা তাদের নেটওয়ার্ক থেকে ব্লক করে দেয়।

রেডিটে জিও গ্রাহকরা রিপোর্ট করেছে যে তাঁরা ওইসব ওয়েবসাইট দেখতে পারছেন না। অনেক গ্রাহকই জানতে চেয়েছেন যে সব জিও গ্রাহকদের একই অভিজ্ঞতা কিনা। অ্যাডাল্ট ওয়েবসাইট খুলতে গেলেই ওয়েব পেজ লোড হওয়া বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।

উত্তরাখন্ড হাই কোর্ট ৮৫৭ ওয়েবসাইটকে ব্লক করার কথা জানিয়েছিল৷ যার মধ্যে ৩০ টি পোর্টালে কোনরকম পর্ণগ্রাফিক কনটেন্ট খুঁজে পায়নি মিনিস্ট্রি অফ ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড আইটি (Meity).

এর আগেও পর্ণসাইট বন্ধের বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল৷ তবে, তা পুরোমাত্রায় সাফল্য পায়নি৷ তবে সরকারের এই নয়া সিদ্ধান্ত কতখানি কার্যকর হবে এখন সেটাই দেখার বিষয়৷ খুব কম বয়সেই অনেকের মধ্যে পর্ণসাইটে আসক্তি তৈরি হতে দেখা গিয়েছে৷ আর, তার থেকে অপরাধমূলক কাজের প্রবণতামূলক ঘটনাও নেহাত কম নয়৷ তাই, সবকিছুকে গুরুত্ব দিয়েই সিদ্ধান্তটি নিয়েছে সরকার৷