নয়াদিল্লিঃ  ভোট মিটলেই নাকি কয়েক হাজার কর্মী ছাটাই করবে বিএসএনএল। সম্প্রতি জাতীয় সংবাদমাধ্যমে এমনই কিছু খবর প্রকাশ্যে আসে। কিন্তু আজ বৃহস্পতিবার বিএসএনএলের তরফে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয় যে, কর্মী ছাটাইয়ের কোনও পরিকল্পনা তাঁদের নেই। এমনকি বয়স কমিয়ে দেওয়ার বিষয়েও এমনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন বিএসএনএলের সিএমডি।

তিনি এই বিষয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে টুইটও করেছেন। যেখানে স্পষ্ট করে বিএসএনএলের সিএমডি জানিয়েছেন, স্বেচ্ছাবসর চালু থাকলেও ছাঁটাই বা অবসরের কোনও পরিকল্পনা নেই সংস্থার।

ক্রমশ আর্থিক দায় বাড়ছে রাষ্ট্রায়ত্ব এই টেলিকম সংস্থার। কর্মচারীদের বকেয়া বেতন ক্রমশ বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে সংস্থার উপর দায় কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আর সেই মতো ৫৪,০০০ কর্মীকে ছাঁটাই করা হতে পারে বলে খবর। কর্মীদের অবসরের বয়স ৬০ থেকে ৫৮ করা হতে পারে বলেও দাবি করেছিল সংবাদ মাধ্যমের একাংশ। কিন্তু সেই খবর ভিত্তিহীন বলে দাবি করলেন সংস্থার সিএমডি অনুপম শ্রীবাস্তব।

টুইটারে তিনি লিখেছেন,”কর্মীদের স্বেচ্ছাবসরে লোভনীয় প্রস্তাব ও ৪জি স্পেকট্রামের মাধ্যমে ঘুরে দাঁড়ানোর পরিকল্পনা করেছে বিএসএনএল। অবসরের বয়স কমানো বা ছাঁটাই নিয়ে ভাবাই হয়নি। এই সংক্রান্ত সমস্ত রকম খবর ভিত্তিহীন”।

বর্তমানে বিএসএনএলের কর্মী সংস্থা ১.৭৬ লক্ষ। সংস্থা গঠনের সময় চাকরি পেয়েছিলেন তাঁরা। কর্মীদের বেতন দিতেই চলে যায় বিএসএনএলের আয়ের ৫৫-৬০ শতাংশ। এই অবস্থায় বিএসএনএল চালানো প্রায় সম্ভব হচ্ছে না বলেই দাবি একাংশের।