নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: নেতাজী ইনডোর স্টেডিয়ামে তখন চাঁদের হাট৷ মঞ্চে উপস্থিত বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ, রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, রাহুল সিনহার মত নেতারা৷ সেখানেই গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেন সব্যসাচী দত্ত৷

এই মঞ্চে দাঁড়িয়ে দিলীপ ঘোষ জানালেন এনআরসি নিয়ে রাজ্যের মানুষের ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই৷ রাজ্যে পুজোর আগে একটা ভয়ের পরিবেশ তৈরি করা হয়েছে৷ উদ্বাস্তু বাঙালি হিন্দুকে ভয় দেখানো হচ্ছে৷ পাহাড়ে গিয়ে গোর্খাদের ভয় দেখানো হচ্ছে৷ রাজ্য়ের মুসলিমদের ভয় দেখানো হয়েছে৷ কিন্তু এঁদের ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই৷

এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন পশ্চিমবঙ্গের মানুষ বিজেপিকে বিকল্প হিসেবে পেয়েছে৷ বিজেপি এই রাজ্য থেকে কোনও হিন্দুকে তাড়াতে দেবে না৷ কোনও উদ্বাস্তুকে উচ্ছেদ হতে দেবে না৷ তাঁরা নিশ্চিন্তে থাকতে পারেন৷

এদিন এই একই সুর শোনা যায় রাহুল সিনহার গলাতেও৷ এদিন মঞ্চে রাজ্যের হিন্দুদের পাশে দাঁড়িয়ে জোর গলায় তিনি বলেন তাঁদের ভয় কোনও কারণ নেই৷ অন্যদিকে বিজেপিতে সব্যসাচী যোগ দেওয়ার পরেই এনআরসি ইস্যুতে মুখ খুলেছেন। সব্যসাচী এদিন এনআরসি নিয়ে বলেন, “আমার নাগরিকপঞ্জী নিয়ে অসুবিধা নেই। কিন্তু অনুপ্রবেশকারীদের ভারতে থাকতে দেব না। যারা ভারতকে টুকরো করতে চায় তাদের চিনে রাখুন। বাংলা ধীরে ধীরে পাকিস্তানের অংশ হয়ে যাচ্ছে। বাংলাকে এর থেকে বাঁচাতে হবে।”