ওয়াশিংটন: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মেগা ইভেন্ট ‘হাউডি মোদী’তে এসে ‘অব কি বার ট্রাম্প সরকার’ স্লোগান নিয়ে ঝড় উঠেছে দেশ থেকে আন্তর্জাতিক মহলে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপস্থিতিতে এই বক্তব্য রেখেছিলেন। তবে বিতর্কের অবসান ঘটাতে এবার দায়িত্ব নিলেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। তিনি বলেন, “এই মন্তব্যের ভূল মানে করা কারোরই উচিৎ নয়।” তিনদিনের সফরে ওয়াশিংটন পৌঁছে বারবারই ভারতের অবস্থান পরিষ্কার করার চেষ্টা করেন তিনি।

মঙ্গলবার তিনি পৌঁছে বলেন যে, “আমেরিকার রাজনীতি নিয়ে ভারত পক্ষপাতহীন একটি ভাবধারা রাখে।” সপ্তাহব্যাপী সফরে এসে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গেই প্রধানমন্ত্রী মোদী হাউসটনে মেগা ইভেন্টে যোগদান করেছিলেন। তাঁকে জাঁকজমকপূর্ণভাবে দেশে আপ্যায়ন করা হয়। প্রায় ৫০০০০ হাজার মানুষের সামনে কিছুটা অন্যভাবে পরিচয় করিয়ে দিতেই নরেন্দ্র মোদী এই স্টাইল নিয়েছিলেন, এমনটাই বক্তব্য বিদেশমন্ত্রীর।

আমি মনে করি না যে আমাদের এভাবে কথার ভুল ব্যাখ্যা করা উচিত। আমি মনে করি না যে আপনি এরকম করে কারও সেবা করছেন”, বিদেশমন্ত্রী সাংবাদিকদের উদ্দেশে প্রকৃত কথাটি তুলে ধরার হওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন।

“আমি বলতে চাইছি, তিনি (প্রধানমন্ত্রী মোদি) কী বিষয়ে কথা বলছিলেন তা বেশ স্পষ্ট ছিল। তিনি বলছিলেন, আপনি (ডোনাল্ড ট্রাম্প) প্রার্থী হিসাবে এটাই বলেছেন, যা প্রমাণ করে যে আপনি চেষ্টা করছেন, (এমনকি প্রার্থী হিসাবে ভারত এবং এর জনগণের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন)” বলেন জয়শঙ্কর ।