তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: মেলালো সে মেলালো। মারণ ব্যাধি ‘করোনা’ ভাইরাস এসে তীব্র রাজনৈতিক বিরোধিতা ভুলিয়ে যুযুধান রাজনৈতিক দল গুলিকে এক সূত্রে বেঁধে দিল।

বাঁকুড়া পুরসভার বাম-বিজেপি সহ কংগ্রেসের ছয় কাউন্সিলর ‘ডেথ সার্টিফিকেট’ ছাড়া শহরের কোনও শ্মশানে মৃতদেহ সৎকার না করার দাবি জানিয়ে জেলাশাসককে ডেপুটেশন দিলেন।

বৃহস্পতিবার এই তিন বিরোধী দলের কাউন্সিলররা একত্রিত হয়ে জেলাশাসক অরুণ প্রসাদের কাছে তাঁদের দাবিপত্র তুলে দেন।

বিজেপি, কংগ্রেস ও সিপিএম কাউন্সিলররা এদিন অভিযোগ করে বলেন, রাতের অন্ধকারে পুলিশ প্রশাসনের উপস্থিতিতে মৃতদেহ সৎকার করায় বাঁকুড়ার মানুষ যথেষ্ট আতঙ্কে আছেন। এই আতঙ্ক দূর করতে হবে।

৭ নম্বর ওয়ার্ডের সিপিআই(এম) কাউন্সিলর রাজু বাউরী বলেন, ডেথ সার্টিফিকেট ছাড়াই রাতের অন্ধকারে মৃতদেহ সৎকার করা নিয়ে মানুষ যথেষ্ট আতঙ্কে আছেন। তিনি নিজে একজন নির্বাচিত পুর প্রতিনিধি হওয়া সত্বেও পুরসভার তরফে তাকে এবিষয়ে কিছু জানানো হয়নি বলে তিনি দাবি করেন।

১৬ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি কাউন্সিলর নীরাদ্রী শেখর দানা বলেন, সম্পূর্ণ ইচ্ছাকৃতভাবেই তথ্য গোপন করা হচ্ছে। রাতের অন্ধকারে মৃতদেহ সৎকারের প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেন, এই নিয়ে কেউ কিছু বলতে গেলেই তার বিরুদ্ধে মামলা করে মানুষের মুখ বন্ধ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। প্রতিবাদ করলেই প্রতিবাদীর গলা টিপে ধরা হচ্ছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

২ নম্বর ওয়ার্ডের কংগ্রেস কাউন্সিলর রাধা রাণী বন্দোপাধ্যায় একই অভিযোগ করে বলেন, রাতের অন্ধকারে মৃতদেহ সৎকার নিয়ে তারা সম্পূর্ণ অন্ধকারে। পুরসভার তরফে কিছুই জানানো হয়নি বলেও তার দাবি।

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I