ফাইল ছবি

পোখরান: একদিকে যখন যুদ্ধের হুঁশিয়ারি দিচ্ছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, তখন পরমাণু নীতি নিয়ে ইঙ্গিতবাহী মন্তব্য করলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। বাজপেয়ীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে পোখরানে গিয়ে ‌এমনটাই জানালেন রাজনাথ।

কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ শুক্রবার বলেন, ভারত প্রথম পরমাণু অস্ত্র প্রয়োগের পক্ষে নয়। আজ পর্যন্ত ভারত ‘নো ফার্স্ট ইউজ’ নীতিতেই বিশ্বাস করে। কিন্তু রাজনাথ এদিন বলেন, ‘‘ভবিষ্যতে কী হবে তা নির্ভর করবে পরিস্থিতির উপরে।”

পোখারনেই ভারতের দু’টি পরমাণু পরীক্ষা হয়েছিল। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের জানান, ‘‘ভারতকে পারমাণবিক শক্তিশালী করে তোলা আমাদের দৃঢ় সংক‌ল্প ছিল এবং এখনও আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ ‘নো ফার্স্ট ইউজ’ সম্পর্কে। এটাই সত্যি এখনও পর্যন্ত। ভারত এই নীতির প্রবল সমর্থক। ভবিষ্যতে কী হবে তা নির্ভর করবে পরিস্থিতির উপরে।”

রাজনাথের এদিনের মন্তব্যকে অনেকেই পাকিস্তানের প্রতি প্রচ্ছন্ন হুঁশিয়ারি হিসেবেই দেখছেন। জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিল করে তাকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করার বিল লোকসভায় পাস হওয়ার পর পাকিস্তান ও ভারতের রাজনৈতিক সম্পর্কে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে, কাশ্মীর ইস্যুতে চিন ও পাকিস্তানের যৌথ চিঠি গিয়েছে রাষ্ট্রসংঘে৷ দুই দেশেরই দাবি কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার নিয়ে ভারতের ভূমিকা অনৈতিক৷ সেই বিষয়ে আলোচনা করুক রাষ্ট্রসংঘ৷ দাবি মেনে ১৯৬৫ সালের পর এই প্রথম রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসতে চলেছে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ৷

স্থানীয় সময় সকাল ১০টা অর্থাৎ ভারতীয় সময় সন্ধ্যে সাড়ে সাতটায় এই বৈঠক শুরু হওয়ার কথা৷ রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এই সংক্রান্ত একটি তথ্যও জারি করা হয়েছে৷ উল্লেখ্য, ১৯৬৪ সালে ১৬ই জানুয়ারি পাকিস্তানের অনুরোধে প্রথমবার কাশ্মীর নিয়ে আলোচনা হয়৷ তারপর এই আলোচনা হবে শুক্রবার৷