স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : স্নাতক স্তরের ভরতির ক্ষেত্রে এবছর থেকে প্রবেশিকা পরীক্ষার দাবি উঠেছিল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের বেশ কিছু বিষয়ে। কিন্তু চলতি বছর থেকে বিজ্ঞান বিভাগের কোনও বিষয়েই প্রবেশিকা পরীক্ষা চালু হবে না বলে বুধবার কমিটির বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

মঙ্গলবার ঠিক হয়েছে, মেধা তালিকা তৈরির ক্ষেত্রে মানা হবে পঞ্চাশ-পঞ্চাশ সূত্র। কলা বিভাগে প্রতিটি বিষয়ে এবার প্রবেশিকা পরীক্ষা নেওয়া হবে। অর্থাৎ পঞ্চাশ-শতাংশ প্রবেশিকা পরীক্ষা থেকে এবং বাকি পঞ্চাশ শতাংশ স্কুল স্তরে সর্বশেষ পরীক্ষার প্রাপ্ত নম্বর থেকে নেওয়া হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রের খবর, এদিনের বৈঠকে গণিত ও পদার্থবিদ্যার সঙ্গে রসায়ন বিভাগও ভরতি পরীক্ষা চালুর দাবি জানিয়েছিল। গণিতের এক শিক্ষক এদিন বলেন, অনেক ছাত্রছাত্রীই হয়তো প্রচুর নম্বর পেয়ে পাশ করে আসেন। কিন্তু দেখা যায় পড়ুয়াদের এই ধরনের বিষয়ে গভীরে যেতে অসুবিধা হচ্ছে। তাই প্রবেশিকার মাধ্যমে অন্তত পরীক্ষা করে নেওয়া যায়, এই ধরনের বিজ্ঞান বিষয়ে পড়ার মতো সক্ষমতা ও বোধ আছে তাঁদের আছে কি না।

এ বছর বিজ্ঞান বিভাগের কোনও বিষয়ে প্রবেশিকা পরীক্ষা নেওয়া হবে না বলে ঠিক হলেও গণিতের বিভাগীয় প্রধান এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তাঁর আপত্তির কথা বৈঠকে জানান। বিজ্ঞান বিভাগের এই সিদ্ধান্তের বিষয়টি মঙ্গলবার কর্মসমিতির বৈঠকে পেশ করা হবে। এর সঙ্গে কলা বিভাগের সব বিষয়ে প্রবেশিকা পরীক্ষা চালু করার ব্যাপারেও আলোচনা হবে কর্মসমিতিতে।

ভূতত্ত্ব ও ভূগোল বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়, প্রবেশিকা তারা চাইছে না। কারণ, এত দ্রুত ভরতির পরীক্ষা নিয়ে ওঠা সম্ভব নয়। ভূগোল বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়, প্রবেশিকা পরীক্ষা নেওয়ার মতো লোকবলও তাদের নেই। বৈঠকে বলা হয়, ভরতি পরীক্ষা নেওয়া হলে জয়েন্ট এন্ট্রান্স বোর্ডের মাধ্যমে নেওয়া হোক।