স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: ভাটপাড়া, বনগাঁ, নৈহাটির পর এবার এবার কী মুর্শিদাবাদের ডোমকল পুরসভায় গেরুয়া থাবা?

তৃণমূল পরিচালিত ডোমকল পুরসভার চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনলেন দলেরই অধিকাংশ কাউন্সিলর৷ ইতিমধ্যেই মহকুমা শাসককে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থার চিঠি জমা দিয়েছেন তৃণমূল কাউন্সিলররা৷ ওই চিঠির প্রতিলিপি জমা দেওয়া হয়েছে পুরসভার এক্সিরিউটিভ অফিসারকে৷

আরও পড়ুন: ‘কাটমানি নিতে বাধা দেওয়াতেই সরিয়ে দেওয়া হল’, ক্ষোভ বিজেপির অন্দরে

ডোমকল পুরসভায় রয়েছে ২১টি আসন৷ তার মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান প্রদীপ চাকি সহ ১৩ কাউন্সিলর চেয়ারম্যান সমীক হোসেনের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনেন৷ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতা ও স্বজনপোষণের অভিযোগ এনেছেন তৃণমূল কাউন্সিলররা৷ পুরসভা পরিচালনায় কাউন্সিলরদের মতামত নিতেন না চেয়ারম্যান৷ এতে সমস্যায় পড়তে হয় তাঁদের৷ তাঁদের দাবি, বিষয়টি জেলা সভাপতি ও দলীয় নেতৃত্বকে জানানো হয়েছিল৷ কিন্তু, কাজেক কাজ হয়নি৷

ফলে, বাধ্য হয়েই তাঁদের দলীয় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনতে হচ্ছে৷ প্রথানুয়ায়ী আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ডোমকল পুরসভার চেয়ারম্যান সৌমিক হোসেনকে তাঁর পক্ষে সংখ্যাধিক্যের প্রমাণ দিতে হবে৷ নিজের দলের কাউন্সিলরদের অভিযোগ সম্পর্কে অবশ্য মুখ খুলতে নারাজ চেয়ারম্যান৷ তবে, বিষয়টি সম্পর্কে তিনি অবহিত বলে জানিয়েছেন৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।