সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা : ভারী বৃষ্টির আশা জাগিয়েও কলকাতার ভাগ্যে রয়েছে সেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি। এমনটাই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর। সেই তালিকায় কলকাতাও ছিল। কিন্তু ক্ষণিকের মধ্যে এসে ভিজিয়ে দিয়েই মুহূর্তে উধাও হচ্ছে বৃষ্টি। আগামী ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিমের জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু মহানগরের প্রাপ্তি সেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি।

শনিবার বিকেলে আকাশ কালো করে মিনিট ২০ ঝেঁপে বৃষ্টি হল কলকাতায়। কিছুক্ষণের স্বস্তি। বৃষ্টি থামতেই ঝকঝকে আকাশ। পূর্ণিমার চাঁদ স্পষ্ট। তখনও আশা ছিল কলকাতাবাসীর। কারন মৌসম ভবন থেকে আলিপুর আবহাওয়া দফতর রাখীর দিন থেকেই রাজ্যের প্রত্যেক জেলায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছিল। কলকাতাবাসী আশা করেছিল বিকেলের বৃষ্টি হয়তো ‘ট্রেলার’। রবিবার, ছুটির দিন থেকে ঝেঁপে বৃষ্টি নামবে। কিন্তু কোথায় কি? রবিবার সকাল থেকে দেখা মিলল পরিষ্কার আকাশের। দুপুর হতেই কালো মেঘের ঘনঘটা। যথারীতি শনিবারের বিকালের পুনরাবৃত্তি। মিনিট কুড়ি ব্যাপক বৃষ্টি। তারপরেই পরিষ্কার আকাশ। সোমবারেও বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে কলকাতায়। ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, বীরভূম ও দুই মেদিনীপুর জেলায়। মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

কিন্তু কলকাতার এই পরিস্থিতি কেন? আবহবিদরা জানাচ্ছেন এই মুহূর্তে নিম্নচাপটি রয়েছে উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপাসাগর বরাবর। সঙ্গে রয়েছে ঘূর্ণাবর্ত। তাই পশ্চিমের জেলায় বেশি মেঘ জমাট বাঁধার সম্ভাবনা রয়েছে। নিম্নচাপ যদি উত্তর পূর্ব বঙ্গোপাসাগর উপর থাকত এবং লাগোয়া ঘূর্ণাবর্তটি যদি বাংলাদেশের কাছাকাছি অবস্থান করত তাহলে কলকাতায় ভারী বৃষ্টি হত। আবহবিদরা এও জানাচ্ছেন নিম্নচাপটি এক জায়গাতেই ঠায় দাঁড়িয়ে রয়েছে। কোনও দিকে এগোবে নাকি নতুন কোনও সিস্টেম তৈরি করতে সাহায্য করবে কিছুই বোঝা যাচ্ছে না। অর্থাৎ এর গতিবিধি এখনও স্পষ্ট নয়। সবমিলিয়ে কলকাতার ভাগ্যে যে ভারী বৃষ্টি এখন নেই তা স্পষ্ট। উলটে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি বাদে বাকি সময়টা ভাদ্র মাসের তীব্র রোদ এবং আর্দ্রতাজনিত গরম ভোগাতে পারে তিলোত্তমাকে।

এদিন কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে দুই ডিগ্রি বেশি। সর্বনিম্ন ২৭.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে এক ডিগ্রি বেশি। সর্বোচ্চ আর্দ্রতার পরিমাণ ৯৫ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৬৪ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় ১২.১ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় শহরের তাপমাত্রা থাকবে সর্বোচ্চ ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে সর্বনিম্ন ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে।