কলকাতা: নির্দিষ্ট সময়ের পরেই রাজ্যে আবির্ভাব ঘটেছিল বর্ষার। বেশ কিছুটা দেরিতে হলেও দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টি এসেছে। তীব্র গরমের থেকে হাঁফ ছেড়ে বেচেছিল সাধারণ মানুষজন। তবে বিগত কয়েকদিন ধরে সারাদিন ধরে ঝিরিঝিরি আবার কখনও বা মুষলধারে বৃষ্টি হওয়ার ফলে ভোগান্তির মধ্যে সাধারণ মানুষ। আদ্রতাজনিত অস্বস্তির মধ্যেও বৃষ্টি একটু স্বস্তি দিয়েছিল বঙ্গবাসীকে।

শনিবার প্রথম পর্যায়ে বৃষ্টির কথা বললেও সন্ধ্যায় অন্য কথা জানায় আলিপুর আবহাওয়া দফতর। রবিবার উত্তর বা দক্ষিণবঙ্গ কোথাও আর ভারি বৃষ্টির সম্ভবনা নেই।

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এই মুহূর্তে ওড়িশার উপকূলবর্তী অঞ্চলে একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছে। আর দক্ষিণ বাংলাদেশ সংলগ্ন গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপরে একটি ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে। যার জন্য আগামী চব্বিশ ঘণ্টায় গোটা দক্ষিণবঙ্গেই হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে পূর্ব মেদিনীপুর, দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার মতো উপকূলবর্তী জেলাগুলি এবং পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রামের মতো জেলাগুলিতে বৃষ্টির পরিমাণ তুলনামূলকভাবে বেশি থাকবে।

অন্যদিকে দক্ষিণবঙ্গের মতো উত্তরেও হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টিরই পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। কোথাওই ভারী অথবা অতিভারী বৃষ্টির সতর্কতা নেই। শনিবার সকাল থেকে ভারি বৃষ্টির কথা জনালেও শহরে সেরকম বৃষ্টিপাতের কোন খবর নেই। তবে আকাশ সারাদিনই মেঘলা। রবিবার সকালের আকাশও বেশ মেঘলা। তাই বিক্ষিপ্ত থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা পুরোপুরি বাদ দেওয়া যাচ্ছে না।