ফাইল ছবি

পাটনা: ভয়াল করোনার গ্রাসে গোটা বিশ্ব। ইতিমধ্যে মারণ ভাইরাস থাবা বসিয়েছে ভারতেও। ক্রমশ খারাপ হচ্ছে পরিস্থিতি। ভারতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৪০০ ছাড়িয়েছে। একের পর এক রাজ্যে ছড়িয়ে পড়ছে মারণ এই ভাইরাস। বিহারেও ক্রমেই আতঙ্ক বাড়াচ্ছে করোনা।

এখনও পর্যন্ত নীতিশ রাজ্যে করণা আক্রান্তের সংখ্যা সাত। যা যথেষ্ট চিন্তার বলে মনে করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে সে রাজ্যে লক ডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। সীমান্তও কার্যত শিল করে দেওয়া হয়েছে। প্রবল চাপের মুখে রাজ্যের মানুষ। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যবাসীর জন্য নয়া ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের।

বিহারের সব সরকারি স্কুলে প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পড়ুয়াদের রাজ্য সরকারের তরফে স্কলারশিপ দেওয়ার ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। শুধু তাই নয়, এক মাসের জন্য ফ্রিতে আগাম রেশন দেওয়ার ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার।

এরই পাশাপাশি রাজ্যের যে যে এলাকায় লকডাউন পরিস্থিতি রয়েছে সেখানে প্রত্যেক রেশন কার্ড হোল্ডার পরিবারকে ১০০০ টাকা করে দেওয়ারও ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। যেভাবে সমস্ত কিছু বন্ধ করে রাখতে হচ্ছে, তাতে আগামিদিনে সংসার চালানো কঠিন হয়ে পড়বে এই সমস্ত মানুষের ক্ষেত্রে। সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত সে রাজ্যের সরকারের।

একই সঙ্গে পেনশনারদের জন্যও নয়া ঘোষণা বিহার সরকারের। পেনশনাররা তিন মাসের পেনশন আগাম পাবেন। সোমবারই এই ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার.। এই সিদ্ধান্তে পেনশনভোগীরা উপকৃত হবেন। এছাড়াও রাজ্যের চিকিৎসক ও কর্মীদের জন্য বিশেষ সুবিধা দেওয়ার কথা জানিয়েছেন নীতিশ কুমার। বিহারে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সাত। মারন ভাইরাসে আক্রান্ত হয় রবিবার ৩৪ বছরের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। তারপরই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে রাজ্যে লকডাউন ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। কেন্দ্রীয় সুপারিশ মেনেই অন্য একাধিক রাজ্যের পাশাপাশি এই সিদ্ধান্ত নেয় বিহার সরকারও।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প