পাটনাঃ   মোদী অপরাজেয়! আগামী লোকসভা নির্বাচন অর্থাৎ ২০১৯ সালে মোদীকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দেবে এমন সাধ্য কারো হয়নি। এভাবেই মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন নীতীশ কুমার। আজ সোমবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে একদিকে যেমন মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন অন্যদিকে লালু প্রসাদকে বিঁধতে ছাড়লেন না বিহারের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, লালপ্রসাদ যাদবই জোট ভেঙেছে। লালুজি জাতপাতের ভিত্তিতে বিশ্বাসী, একটি বিশেষ গোষ্ঠীর নেতা, কিন্তু আমি গণভিত্তির মাপকাঠিতে বিশ্বাস করি।

নীতীশ গত সপ্তাহেই প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী, তথা লালুপ্রসাদ যাদবের পুত্র তেজস্বী নারায়ণ যাদবের বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগের ইস্যুতে আরজেডি, কংগ্রেসের সঙ্গে জোট ভেঙে ইস্তফা দিয়ে ২৪ ঘন্টার মধ্যেই বিজেপির সমর্থনে সরকার গড়েন বিহারে। নীতীশের দাবি, দুর্নীতির অভিযোগে মিডিয়ার হৈচৈ-কে তিনি প্রথমে আমল দিতে চাননি। ভেবেছিলেন, জোটে এমন হয়েই থাকে। কিন্তু অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কেন তিনি কিছু করছেন না, এই প্রশ্নে তাঁর দিকে আঙুল উঠতে শুরু করে। তিনি মহাজোট বাঁচিয়ে রাখার বহু চেষ্টা করা সত্ত্বেও আরজেডি তেজস্বীর বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগের ব্যাখ্যা না দেওয়ায় ইস্তফা দিতে বাধ্য হন। এমনকি, নীতীশ আরও বলেন, জেডিইউ তেজস্বীকে দুর্নীতির অভিযোগের মুখে নির্দোষ প্রমাণ করে জনসমক্ষে নিজের অবস্থান জানাতে বললেও তিনি ও তাঁর দল তাতে কান দেয়নি। তারপর কী করে চুপ থাকি, কেননা আমিও তো দুর্নীতির প্রশ্ন জিরো টলারেন্সের কথা বলেছি। আর সেজন্যেই জোট থেকে বেরিয়ে আসতে বাধ্য হন বলে জানিয়েছেন নীতীশ।