মুম্বই: একটু একটু করে এগিয়ে আসছে নিসর্গ। আরব সাগরের উপর গতি বাড়াচ্ছে এই সাইক্লোন। ইতিমধ্যেই বেশ খানিকটা গতি বাড়িয়েছে এই ঝড়। শুরু হয়েছে বৃষ্টিপাত।

বুধবার বিকেলে উপকূলে আছড়ে পড়ার কথা এই ঝড়ের। তার আগে গতি বাড়াচ্ছে এটি। আগামী ১২ ঘণ্টার মধ্যেই ভয়াল রূপ ধারণ করবে বলে জানিয়েছে মৌসম ভবন।

শেষ পাওয়া আপডেট অনুযায়ী, আরব সাগরে আরও উত্তর ও উত্তর-পূর্ব দিকে এগোচ্ছে নিসর্গ। গত ১ ঘণ্টায় গতি ঘণ্টায় ২০ কিলোমিটার থেকে বাড়িয়ে ২৪ কিলোমিটার করে ফেলেছে সেই ঘূর্ণিঝড়। ইতিমধ্যেই গোয়া, সান্তাক্রুজ ও কোলাবায় ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে।

প্রথমে উত্তরমুখী পড়ে অভিমুখ পরিবর্তন করে অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। শেষ পর্যন্ত উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয় এটি মহারাষ্ট্রের রায়গর এর কাছে হরিহরেশ্বর ও দমনের মাঝে উপকূলে আছড়ে পড়বে। উপকূলে আছড়ে পড়ার সময় এই ঝড়ের গতিবেগ থাকতে পারে ১২৫ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায়। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উপকূলবর্তী এলাকা থেকে সরানো হচ্ছে মানুষজনকে।

সংবাদসংস্থা জানাচ্ছে, ইতিমধ্যে গুজরাত উপকূল থেকে ২০ হাজার মানুষকে সরানো হয়েছে। প্রাণহানি এড়াতে আরও মানুষজনকে সরানো হচ্ছে। তৈরি রয়েছেন কোস্ট গার্ড এবং ইন্ডিয়ান নেভি। জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দলকেও তৈরি রাখা হয়েছে। সাইক্লোনের তাণ্ডব কিছুটা ঠান্ডা হলেই উদ্ধার কাজ শুরু হবে বলে মনে করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র সরকারের তরফে সাইক্লোন নিসর্গের জন্য মুম্বই সহ একাধিক জেলার জন্য সতর্কতা জারি করা হয়েছে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, বুধবার সমুদ্র সৈকতে আছড়ে পড়বে এই ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়।

কালেক্টর কৈলাশ সিন্দে জানিয়েছেন, মোট ৫৭৭টি মৎস্যজীবীদের বোট সমুদ্রে গিয়েছিল তবে সোমবার পর্যন্ত ৪৭৭টি ফিরে এসেছে তবে বাকীরা এখনও ফেরেনি বলেই জানা গিয়েছে। সেই কারণে যথেষ্ট চিন্তায় স্থানীয় প্রশাসন। কোস্ট গার্ডকে এই বিষয়ে ইতিমধ্যে সতর্ক করা হয়েছে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV