নয়াদিল্লি: শপথ নিয়েছে নতুন মন্ত্রিসভা৷ দফতর বণ্ঠনের পালাও শেষ৷ অর্থমন্ত্রী পদে শপথ নিয়েছেন নির্মলা সাতীরমণ৷ পেশ করা হবে পূর্ণাঙ্গ বাজেট৷ জুনের ১৭ থেকে ২৬ জুলাই পর্যন্ত বসতে চলেছে বাজেট অধিবেশন৷ অর্থমন্ত্রী বাজেট পেশ করবেন ৫ জুলাই৷

সূত্রের খবর, আগামী ১৯ জুন লোকসভার স্পিকার নির্বাচন হবে৷ সংসদের সদস্যরা ভোটাভুটির মাধ্যেমে তাদের হেড স্যার নির্বাচন করবেন৷ প্রোটেম স্পিকার সন্তোষ গাঙ্গোয়ার৷ তবে স্পিকার হিসাবে বিজেপি বা এনডিএ কাকে মনোনয়ম দেবে সেদিকে কৌতুহল রয়েছে৷ তবে বিরোধীরা স্পিকার পদের লড়াইয়ে অংশ নেবেন কিনা তা জানা যায়নি৷

দেশের জনাদেশ মোদীর পক্ষে৷ ৫৪২ এর বিজেপি একাই জিতেছে ৩০২ আসন৷ এনডিএ-এর দখলে ৩৫২ লোকসভা কেন্দ্র৷ বৃহস্পতিবারই, দ্বিতীয়বারের জন্য রাষখ্ট্রপতি ভবনে শপথ নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী৷ তাঁর সঙ্গেই শপথ নেন আরও ৫৭ জন৷ সপ্তদশ লোকসভা গঠনের পর ১৯ জুনই বসতে চলেছে সংসদের অধিবেষন৷

মনে করা হচ্ছে, এই বাজেট বরাদ্দে গুরুত্ব পাবে কৃষি এবং কর্মসংস্থান৷ ক্যাবিনেট বৈঠকে সিলমোহর পড়েছে প্রধানমন্ত্রী কিষাণ পেনশন প্রকল্পে৷ উল্লেখ্য, গত এনডিএ সরকারের আমলে কৃষিঋণ মকুব নিয়ে দফায় দফায় আন্দোলনে উত্তাল হয়েছিল গোটা দেশ। ইতিমধ্যেই নতুন মন্ত্রিসভা প্রধানমন্ত্রী কৃষি ঋণ যোজনার পরিধি বিস্তার করেছেন৷ বর্তমানে সাড়ে ১৪ লক্ষ কৃষক এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন৷ জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় কৃষি ও কৃষি কল্যাণ মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর৷

তার সঙ্গে ছিল কর্মসংস্থান। এদিকে গত পাঁচ বছরের হিসাব বলছে, বেকারত্ব বেড়েছে রেকর্ড হারে৷ সেই বিষয়টি মোকাবিলায় কীভাবে পদক্ষেপ করবে কেন্দ্রীয় সরকার সেদিকেও বিশেষ নজর থাকবে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।