নয়াদিল্লি:  রিজার্ভ ব্যাংকের সেন্ট্রাল বোর্ডের সঙ্গে বাজেট পরবর্তী বৈঠক করতে চলেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। আজ সোমবার এই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হতে চলেছে। এই বৈঠকে বাজেটের গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলি তুলে ধরবেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। পাশাপাশি দেশের অর্থনীতিকে আরও মজবুত করতে কি ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া যায় তা নিয়েই মূলত এদিনের বৈঠকে আলোচনা হবে।

লোকসভা ভোটের আগে অন্তবর্তী বাজেটে চলতি অর্থবর্ষে আর্থিক ঘাটতির পরিমাণ কমিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছিল। বিশেষ করে ঘাটতির পরিমাণ কমিয়ে জিডিপির ৩.৪ শতাংশ করার টার্গেট নেওয়া হয়েছিল। এরই মধ্যে গত শুক্রবার দ্বিতীয় মোদী সরকারের বাজেট পেশ করেন নির্মলা সীতারমণ। আর তা করতে গিয়ে আরও একধাপ এগিয়ে আর্থিক ঘাটতির পরিমাণ ৩.৩ শতাংশে নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছেন সীতারামন। কারণ অন্তর্বর্তী বাজেটে যে অনুমান করা হয়েছিল, কর সংগ্রহের পরিমাণ তার থেকে আরও ৬ হাজার কোটি টাকা বেশি হবে বলে মনে করছে সরকার।

আর্থিক ঘাটতির পরিমাণ ধাপে ধাপে কমিয়ে আনাই এখন মূল লক্ষ্য মোদী সরকারের। আর তার অঙ্গ হিসাবেই ২০২০-২১ অর্থবর্ষে আর্থিক ঘাটতির পরিমাণ জিডিপির ৩ শতাংশে নামিয়ে আনার পরিকল্পনা রয়েছে। জানা গিয়েছে, আর্থিক ঘাটতির পরিমাণ কমিয়ে আনার পাশাপাশি বাজেটে যে সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে তা কীভাবে বাস্তবায়ন করা যায় তা নিয়েও মূলত রিজার্ভ ব্যাংকের আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনা হবে মোদী সরকারের। যাতে আগামিদিনে সবক্ষেত্রেই আর্থিক বৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্র পূরণ করা সম্ভব হয়।

দ্বিতীয় মোদী সরকারের অগ্রাধিকার হল আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে ভারতকে ৫ লক্ষ কোটি ডলারের অর্থনীতিতে নিয়ে যাওয়া। বিমান পরিবহণ, বিমা ও মিডিয়া ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগের পরিমাণ আরও বাড়ানোর কথা ঘোষণা করা হয়েছে শুক্রবারের সাধারণ বাজেটে। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের সেন্ট্রাল বোর্ডের সঙ্গে অর্থমন্ত্রীর বৈঠকে এই বিষয়টি নিয়েও আলোচনা হবে বলে খবর। এছাড়াও আরও একাধিক বিষয়ে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে জানা গিয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ