ঢাকা: তখন তিনি বাংলাদেশের বিরোধী নেত্রী৷ ১৯৯৪ সালে পাবনার ঈশ্বরদীতে একটি জনসভায় যাওয়ার পথে শেখ হাসিনাকে খুনের ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল৷ তিনি যে ট্রেনে ছিলেন সেই ট্রেনে গুলি ও বোমা হামলা হয়৷ সেই মামলায় ৯ জনের ফাঁসির সাজা হয়েছে৷ ২৫ জনকে দেয়া হয়েছে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। এছাড়া ১৩ জন আসামিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড হয়েছে।

একাধিক হামলায় অল্পের জন্য বেঁচেছেন বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী তথা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা৷ ১৯৯৪ সালে তিনি যখন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের বিরোধী নেত্রী তখন তাঁকে লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়া হয়৷ সেই মামলার রায় দিয়েছেন পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-১ আদালতের বিচারক মহমম্দ রোস্তম আলী৷

কী সেই ঘটনা ?

১৯৯৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বরের দিন৷ তৎকালীন বিরোধী নেত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের কর্মসূচিতে অংশ নিতে ট্রেনে করে খুলনা থেকে সৈয়দপুর যাচ্ছিলেন। ঈশ্বরদী জংশনে তাঁর পথসভা করার কথা ছিল। ট্রেনটিতে হামলা চালানো হয়৷ শেখ হাসিনার কামরা লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি করা হয়। এতে কামরাটির জানালার কাচ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

এই ঘটনায় বাংলাদেশ জুড়ে আলোড়ন ছড়ায়৷ পরে ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে৷ শুরু হয় এই ট্রেন হামলার তদন্ত৷ সিআইডি ১৯৯৭ সালের ৩ এপ্রিল চার্জশিট জমা দেয়। এতে বিএনপি নেতা মকলেছুর রহমান বাবলু সহ দলটির ৫২ নেতা ও কর্মীকে আসামি করা হয়। শেখ হাসিনাকে যতবার খুনের চেষ্টা হয়েছে , তার মধ্যে এই ট্রেনে হামলা অন্যতম৷