নিউজ ডেস্ক, কলকাতাঃ লোকসভা নির্বাচনে মন্ত্রিসভা গঠনের পর একটু হতাশ হতে হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গকে। ১৮জন নির্বাচিত সাংসদ থাকলেও, বিড়ালের ভাগ্যে শিঁকে ছিঁড়েছিল মাত্র দুজনের। বাবুল সুপ্রিয় ও দেবশ্রী চৌধুরী। তবে দুজনেই পূর্ণমন্ত্রী নন, প্রতিমন্ত্রী হয়েছিলেন। সেই হারিয়ে যাওয়া আশা হয়ত এবার কিছুটা হলেও পূর্ণ হতে চলেছে। বড়সড় রদবদল করা হল সংসদীয় কমিটিতে। যেখানে জায়গা করে নিলেন বাংলা ৯জন বিজেপি সাংসদ। নিয়ে আসা হয়েছে বেশ কয়েকটি নতুন মুখ।

বলা যায় দুধের স্বাদ ঘোলে মেটাতে এবার তৈরি হচ্ছে বাংলা। সূত্রের খবর, কংগ্রেসের বিরাপ্পা মৌলি ও শশী থারুরকে সরিয়ে অর্থ ও বিদেশ মন্ত্রকের সংসদীয় কমিটির প্রধান করা হচ্ছে বিজেপি সাংসদ জয়ন্ত সিনহা ও পিপি চৌধুরীকে। পদ হারিয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীও। এতদিন তিনি ছিলেন বিদেশমন্ত্রকের সংসদীয় কমিটিতে। তাঁকে নিয়ে আসা হয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের কমিটিতে। এই কমিটির শীর্ষে রয়েছেন বিজেপি সাংসদ জুয়াল ওরামকে।

অন্যদিকে, শশী থারুরকে দেওয়া হয়েছে তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের সংসদীয় কমিটির প্রধানের পদ। এদিকে, বাংলার ভাগ্যে উদয় হয়েছে ৯জন বিজেপি সাংসদের পদ। সংসদীয় কমিটিতে বাংলা থেকে ৯জন বিজেপি সাংসদকে জায়গা করে দেওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সংসদীয় কমিটিতে এসেছেন দিলীপ ঘোষ। স্বাস্থ্য ও পরিবার বিষয়ক সংসদীয় কমিটিতে রাখা হয়েছে ড. সুভাষ সরকারকে। লকেট চট্টোপাধ্যায়, সুকান্ত মজুমদার ও নিশীথ প্রামাণিক জায়গা করে নিয়েছেন তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের সংসদীয় কমিটিতে। একইসঙ্গে সংসদীয় কমিটিতে স্থান পেয়েছেন সাংসদ অর্জুন সিং।

সোশ্যাল জাস্টিস অ্যান্ড এম্পাওয়ারমেন্ট মন্ত্রকের কমিটিতে জায়গা দেওয়া হয়েছে বারাকপুরের সাংসদকে। সূত্রের খবর বাণিজ্য মন্ত্রকের সংসদীয় কমিটিতে এসেছেন শান্তুনু ঠাকুর ও রাজ্যসভার সাংসদ রূপা গাঙ্গুলি। মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের সংসদীয় কমিটিতে রয়েছেন জগন্নাথ সরকার। তবে তৃণমূলের ডেরেক ও ব্রায়েনের পদে রদবদল ঘটেছে। তাঁকে পর্যটন ও সংস্কৃতি মন্ত্রকের সংসদীয় কমিটি থেকে সরিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকে, যার শীর্ষে রয়েছেন বিজেপি সাংসদ সত্যনারায়ণ জাতীয়।

দিন কয়েক আগেই তেলুগু দেশম পার্টি বা টিডিপির নেতা ভেঙ্কটেশ যোগ দেন বিজেপিতে। সেই ভেঙ্কটেশ পেয়েছেন গুরুদায়িত্ব। তাঁকে ডেরেক ও ব্রায়েনের জায়গায় নিয়ে আসা হয়েছে। পেয়েছেন পরিবহণ, পর্যটন ও সংস্কৃতি মন্ত্রকের সংসদীয় কমিটি শীর্ষ পদ। এর আগে দুটি সংসদীয় কমিটির মাথায় ছিলেন কংগ্রেস সাংসদরা। এখন এই রদবদলের পর মাত্র একটি সংসদীয় কমিটির মাথায় থাকছে কংগ্রেস।