নয়াদিল্লি:  করোনায় আক্রান্ত বাংলাদেশের তিন নাগরিকও। রাজস্থানের রোহতকে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে বাংলাদেশের তিন নাগরিকের। জানা যাচ্ছে, এই তিনজন দিল্লির ওই নিজামুদ্দিনের ধর্মীয় সমাবেশে অংশ নিয়েছিলেন। সেখান থেকেই তাঁদের শরীরে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার হরিয়ানার রোহতকে পালওয়াল জেলার হাচপুরী গ্রামে মোট ১২ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তাঁদের মধ্যে ১০ জন বাংলাদেশের নাগরিকও ছিলেন। পরীক্ষায় তাঁদের মধ্যে ৭ জনের নমুনা স্বাভাবিক হলেও তিনজনের শরীরে করোনা ভাইরাসের নমুনা পাওয়া যায়। যা যথেষ্ট চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে সে রাজ্যের স্বাস্থ্য আধিকারিকদের।

পালওয়ালের প্রধান স্বাস্থ্য আধিকারিক ব্রহ্ম দীপ সিন্ধ জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত তিন বাংলাদেশের নাগরিককে আপাতত হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে। মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক আরও জানিয়েছেন যে, নিজামুদ্দিন ফেরত বাংলাদেশি নাগরিকরা এখনও পর্যন্ত ছাঁইসা, মাথেপুর, দুরেঞ্চি, মেহলকা ও হাচপুরী গ্রামের মসজিদে থেকেছেন।

আর এই সমস্ত মসজিদে থাকাকালীন কাদের কাদের সঙ্গে তাঁরা মিশেছিলেন কিংবা সংস্পর্শে এসেছেন তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দ্রুত তাঁদের খুঁজে বার করে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে। অন্যদিকে, ওই সমস্ত মসজিদ যে সমস্ত গ্রামে রয়েছে সেই সমস্ত গ্রামের বাসিন্দাদেরও স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার জন্যে জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছে রাজস্থান সরকার। পাঠানো হয়েছে মেডিক্যাল অফিসার এবং স্বাস্থ্য কর্মীদের। পাঁচটি গ্রামের সীমান্ত সিল করে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

অন্যদিকে, দিল্লির নিজামউদ্দিনের ধর্মীয় সমাবেশ থেকে করোনা সংক্রমণ। তার জেরে দেশে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। উত্তরপ্রদেশে নতুন করে আক্রান্ত ১৭২। এদের মধ্যে ৪২ জন নিজামউদ্দিনের ধর্মীয় সমাবেশে যোগ দেন। রাজস্থানের ১৪ জনের শরীরেও সংক্রমণ মিলেছে। এরা দিল্লির ওই সমাবেশে যোগ দেওয়া ব্যক্তিদের সংস্পর্শে এসেছিলেন। ওই ধর্মীয় সমাবেশে যোগদানকারী আগরার ২৮ জনের মধ্যে ৬ জনের শরীরে মিলেছে সংক্রমণ।

এদিকে, সমাবেশে যোগদানকারীদের একাংশ কোয়ারন্টাইন সেন্টারে থাকাকালীন অসহযোগিতা ও দুর্ব্যবহার করছেন বলে অভিযোগ। এই পরিস্থিতিতে বিভিন্ন হাসপাতালে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা চেয়ে দিল্লি পুলিশকে চিঠি কেজরিওয়াল সরকারের। পাশাপাশি, দিল্লির ধর্মীয় সমাবেশে যোগ দেওয়ায় উত্তরপ্রদেশে ৬৫ জন বিদেশিকে চিহ্নিত করেছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। ওই বিদেশিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।