নয়াদিল্লি: চোখা চোখা প্রশ্ন৷ শানিত জবাব৷ শাসক বিরোধী তরজা৷ তারই মাঝে লোকসভায় পাশ হয়ে গেল এনআইএ সংশোধনী বিল৷ এর ফলে এখন থেকে বিদেশে ভারতীয়দের ওপর সন্ত্রাসবাদী হামলার তদন্ত করতে পারবে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থাটি৷

বিল পেশের পর আলোচনার সময় এদিন তীব্র বাক্য বিনিময় হয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে এআইএমআইএম নেতা আসাদউদ্দিন ওয়েইসির৷ এদিন আলোচনার শুরুতেই বিজেপি সাংসদ সত্যপাল সিং হায়দরাবাদের একটি ঘটনার উল্লেখ করেন৷ তাঁর কথায়, হায়দরাবাদে ন্ত্রাসবাদ সংক্রান্ত ঘটনার তদন্তে নেমে স্থানীয় প্রভাবশালী নেতার হুমকির মুখে পড়তে হয় পুলিস কমিশনারকে। নির্দেশমতো তদন্ত না করলে তাঁকে বদলির হুমকি দেওয়া হয়। সেই সময়ই তাঁকে থামিয়ে আসাদউদ্দিন ওয়েইসি জানতে চান, অভিযোগের পক্ষে কোনও যুক্তি তাঁর রয়েছে?

সেই সময়ই ঢাল হয়ে দাঁড়ান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী৷ বলেন, বিরোধীরা যখন বক্তব্য রাখছিলেন তখন সরকারপক্ষের সাংসদরা বাধা দেননি। সেই সংযম দেখানো উচিত বিরোধীদেরও। আসাদউদ্দিনের দিকে আঙুল নির্দেশ করে তিনি বলেন, বক্তব্য শোনার জন্য বিরোধীদেরও ধৈর্যশীল হওয়া প্রয়োজন৷ এনআইএ সংশোধনী বিল নিযে আলোচনার সময় সংসদে অমিত শাহ বলেন, নরেন্দ্র মোদীর সরকার কোনও দিন এনআইয়ের অবব্যবহার করেনি। জবাবে আসাউদ্দিন বলেন, ‘‘আমার দিকে আঙুল তাক করে আমাকে ভয় দেখাতে পারবেন না।’’ জবাবে অমিত শাহ বলেন, ‘‘যাঁর নিজের মধ্যেই ভয় রয়েছে তাকে বাইরে থেকে আর ভয় দেখানোর প্রয়োজন পড়ে না৷’’

তৃণমূলের দাবি, এই সংশোধনী অসাংবিধানিক। বিরোধিতা করেছে কংগ্রেসও। বিজেপির পালটা দাবি, ধর্মনিরপেক্ষতার নামে দেশের নিরাপত্তার সঙ্গে আপস করতে উদ্যোগী বিরোধী শিবির৷