স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: জেলা হাসপাতালে বেহাল স্বাস্থ্য পরিসেবা। স্বাস্থ্য সচিবকে অভিযোগ জানিয়ে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের হুমকির মুখে এক সেচ্ছাসেবী সংগঠন। তাঁরা জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে।

জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি ও জেলা হাসপাতালে পরিসেবা তলানিতে ঠেকেছে। পাশাপাশি হাসপাতালের বিভিন্ন বিভাগে পর্যাপ্ত চিকিৎসক নেই। এই সব অভিযোগ তুলে জলপাইগুড়ি জেলাশাসকের মাধ্যমে রাজ্যের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিককে স্মারকলিপি দেয় গ্রিন জলপাইগুড়ি ওয়েলফেয়ার নামে একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠন।

অভিযোগ, এই চিঠি দেওয়ার পর সম্প্রতি তাদের এক মিটিং-এ ডাকা হয়। তাদের উপর স্বাস্থ্য দফতর চাপ সৃষ্টি করে তাদের অভিযোগ পত্র প্রত্যাহার করে নেওয়ার জন্য। তারা রাজি না হওয়ায় মিটিং সেরে বেড়িয়ে আসার পর থেকে তাদেরকে ফোনে ডেপুটি সিএমওএইচ কিংবা সিএমওএইচ-এর নামা করে প্রাণনাশের লাগাতার হুমকি ফোন আসতে থাকে। এই অবস্থায় তারা নিজেদের মধ্যে মিটিং করে সিদ্ধান্ত নিয়ে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

সংগঠনের সম্পাদক অংকুর দাস জানান, সম্প্রতি আমারা জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে বেহাল স্বাস্থ্য পরিসেবা নিয়ে রাজ্যের স্বাস্থ্য সচিবের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছিলাম। এরপর জলপাইগুড়ি স্বাস্থ্য দফতর থেকে আমাদের মিটিং-এ ডেকে অভিযোগ প্রত্যাহারের জন্য চাপ দিলে আমরা রাজি হইনি। তারপর থেকে আধিকারিকদের নাম করে কয়েকটি ফোন নং থেকে আমাদের প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে লাগাতার কল আসছে। জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলাম।

ঘটনায় জলপাইগুড়ি জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাক্তার জগন্নাথ সরকারের কথায়, এটা মিথ্যা অভিযোগ। ঘটনার সঠিক তদন্ত হোক।