অকল্যান্ড: বিশ্বের প্রথম করোনা মুক্ত দেশে হিসেবে মারণ এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই জিতেছে নিউজিল্যান্ড৷ তারপরও সে দেশে ঢোকার ব্যাপারে বিধিনিষেধ আরোর করেছিল সরকার৷ তবে পরিস্থিতি এখনও কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় মঙ্গলবার ঘরের মাঠে আসন্ন চারটি সিরিজ ঘোষণা করল নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড৷

পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশে এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে চারটি হোম সিরিজ খেলবে নিউজিল্যান্ড৷ নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের চিফ একজিকিউটিভ ডেভিড হোয়াইট জানিয়েছে, শীঘ্রই হোম সিরিজ শুরু হবে৷ সফরকারী দলের জন্য আইসোলেশনের ব্যবস্থা থাকছে বলেও জানান তিনি৷

মঙ্গলবার অকল্যান্ডে হোয়াইট সাংবাদিকদের বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমরা দারুণ উন্নতি করেছি৷ সুতরাং আমরা হোম সিরিজ শুরু করতে চলেছি৷ আমি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে কথা বলেছি, ওরা আসতে রাজি হয়েছে৷ পাকিস্তানও সফর নিশ্চিত করেছে৷ ৩৭ দিনের আন্তর্জাতিক সফরে অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশও সম্ভবত আসবে৷’

এফটিপি অনুসারে সেপ্টেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার নিউজিল্যান্ড সফর করার কথা ছিল৷ আর অস্ট্রেলিয়ার মহিলা দলের নিউজিল্যান্ডে খেলার কথা আগামী বছর ফেব্রুয়ারিতে৷ অস্ট্রেলিয়ার ছোট সফর হওয়ার কথা থাকলেও এফটিপি অনুযায়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট এবং টি-২০ সিরিজ খেলার কথা নিউজিল্যান্ডের৷ আর বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে এবং টি-২০ সিরিজ খেলার কথা রয়েছে৷

তবে ক্রিকেট নিউজিল্যান্ডের চিফ একজিকিউটিভ ডেভিড হোয়াইট সফরের সূচি সম্পর্কে কিছু জানায়নি৷ তবে ক্রিকেটারদের সুরক্ষা সম্পর্কে সচেতন ক্রিকেট নিউজিল্যান্ড৷ ইংল্যান্ডের মতো bio-secure bubble model সিরিজ করতে চায় নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড৷ হোয়াইট জানান, ‘আমরা আগামী এক বা দু’ সপ্তাহের মধ্যে আইসোলেসনের ব্যাপারে গভর্মেন্ট এজেন্সির সঙ্গে কথা বলব৷ সরকারে অত্যন্ত সাপোর্টিভ৷

করোনা আবহেই জুলাই থেকে শুরু হয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট৷ ইংল্যান্ড ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে তিন টেস্টের সিরিজ দিয়ে শুরু হয়েছে বাইশ গজের লড়াই৷ বর্তমানে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ খেলছে ইংল্যান্ড৷ দু’টি সিরিজ হচ্ছে বায়ো-সিকিওর পরিবেশে৷

তবে করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাবের সঙ্গে সঙ্গে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ রেখেছে নিউজিল্যান্ড৷ মার্চে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ওয়ান ডে সিরিজ বাতিল করেছে তারা৷ সিরিজের প্রথম ওয়ান ডে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলার পর সিরিজ বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেয় দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ড৷

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।