স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মাধ্যমিক পরীক্ষা চলছে। তার মধ্যেই মাইক বাজিয়ে অনুষ্ঠানের অভিযোগ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছালে পুলিশকে মারধরের অভিযোগ। ভেঙে দেওয়া হয় পুলিশের বাইক। পাল্টা অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধেও। ঘটনাস্থল নিউটাউনের পাথরঘাটা। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, গতকাল রাতে নিউটাউনের পাথরঘাটা এলাকায় একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান চলছিল। সেই সময় ওই এলাকা থেকেই বেশ কয়েকজন জোরে মাইক বাজিয়ে অনুষ্ঠানে অভিযোগ করে পুলিশের কাছে। খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে যায় নিউটাউন থানায় পুলিশ। মাইক ও বক্স বন্ধ করে দেওয়ার অনুরোধ করেন।তখন পুলিশের সঙ্গে অনুষ্ঠান আয়োজকদের বচসা বাধে। এবং পুলিশকে মারধরের অভিযোগ ওঠে।

অপরদিকে অনুষ্ঠান আয়োজকদের অভিযোগ, পুলিশ ওই অনুষ্ঠানে মাইক বাজানো বন্ধের নামে তান্ডব চালায়। এর প্রতিবাদে শুরু হয় রাস্তা অবরোধ। পাথরঘাটা ২১১ বাস স্ট্যান্ডের কাছে রাস্তা অবরোধ করেন । রাস্তায় টাওয়ার জ্বালিয়ে এবং গাছের গুঁড়ি ফেলে রাস্তায় যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয় ।

বৃহস্পতিবার সকালে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। তখন পুলিশের বাইক ভাঙচুর করে পুকুরে ফেলে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। ঘটনাস্থলে আসেন স্থানীয় বিধায়ক তথা বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্ত। প্রায় ৭ ঘন্টা পর রাস্তা অবরোধ তুলে নেওয়া

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশিকা রয়েছে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক বা অন্যান্য বোর্ডের পরীক্ষার সময় জোরে মাইক বাজানো যাবে না। তা সত্ত্বেও মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন বিভিন্ন এলাকা থেকে জোরে মাইক বাজানোর অভিযোগ আসছে। আর তা বন্ধ করতে গিয়ে আক্রান্ত হচ্ছে পুলিশ।