স্টাফ রিপোর্টার, দিঘা: নারী ও শিশু বিকাশ এবং সমাজ কল্যাণ দফতর সকল শিশুর, বিশেষত  পিছিয়ে থাকা সমাজের অন্তর্ভুক্ত তাদের সুরক্ষা প্রদানের দৃঢ় অঙ্গীকারবদ্ধ। এইরকম একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ পরিতক্ত নবজাতক শিশুদের সুরক্ষা প্রদান জন্য দিঘা স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ‘পালনা’ নামে একটি প্রকল্পের সূচনা করেন মন্ত্রী ডঃ শশী পাঁজা। রাজ্যের মধ্যে এই প্রথম সরকারি ব্যবস্থাপনায় ও পরিকাঠামোতে হাসপাতালে মধ্যে পরিতক্ত শিশুর গ্রহণ কেন্দ্র চালু হল৷

এদিন রাজ্যের চালু ২২ টি এসএএ পালনা তৈরি করা হয়েছে পরিতক্ত শিশু গ্রহণ করার জন্য। কেন্দ্রের নারী ও শিশু বিকাশ মন্ত্রকের নির্দেশ নামা অনুসারে রাজ্য নারী ও শিশু বিকাশ ও স্বাস্থ্য দফতর যৌথভাবে সকল সরকারি হাসপাতালে, বেসরকারি নার্সিংহোম, মাতৃসদন, ব্লক স্তরের স্বাস্থ্য কেন্দ্র ইত্যাদিতে পালনা স্থাপন করে পরিতক্ত সকল শিশুকে নিরাপত্তা দিতে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে রাজ্য সরকার।

যে শিশুদেরকে তাদের জন্মদাতা বাবা মা তাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে, সামাজিক, অর্থনৈতিক, মানসিক কারণবশত পরিতক্ত করতে চান অথচ খোলাখুলি সামনে এগিয়ে এসে সরকারি প্রথা অনুসারে প্রদান করতে অপারগ তারাই এই ব্যবস্থায় নিজের পরিচয় গোপন রেখে শিশুকে দিয়ে যেতে পারেন। সরকারি সকল নিয়মকানুন মেনেই ওই সমস্ত শিশুদেরকে যারা দত্তক নিতে ইচ্ছুক তারাই পালন করতে পারবে।

মন্ত্রী ছাড়াও এই দিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি দেবব্রত দাস, সংঘমিত্রা ঘোষ সচিব নারী ও শিশু বিকাশ সমাজ কল্যাণ দফতর পশ্চিমবঙ্গ সরকার, পার্থ ঘোষ জেলাশাসক পূর্ব মেদিনীপুর, শম্পা মহাপাত্র রামনগর-১ ব্লকেৱ সভাপতি, দিঘা রাজ্য সাধারণ হাসপাতালে সুপার বিষ্ণুপদ বাগ প্রমুখ।