নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে থাবা বসিয়েছে করোনা ভাইরাস। প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। রাষ্ট্রপতি, উপরাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, রাজ্যপাল, মন্ত্রী ও সাংসদদের বেতন তিরিশ শতাংশ কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী। এবার তাঁর দাবি, সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে খরচে রাশ টানতে এবার বন্ধ হোক সংসদের নয়া ভবন তৈরির কাজও।

সোমবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে একটি জরুরি বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই বৈঠকেই ঠিক হয় আগামী এক বছরের জন্য সাংসদরা ৩০ শতাংশ বেতন কম নেবেন। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তকে সময়োপযোগী বলে মন্তব্য করেছেন বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী।

টুইটে তিনি লেখেন, ‘সাংসদদের বেতনের ৩০% কাটছাঁটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি। ২৫ হাজার কোটি টাকা খরচে সংসদের নয়া ভবন তৈরির কাজ চলছে। সাম্প্রতিক পরিস্থিতির কথা বিচার করে এবার সেই কাজও অন্তত ১ বছরের জন্য স্থগিত করে দেওয়া হোক।’

দেশে ক্রমেই বাড়ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৫৪টি নতুন করোনা সংক্রমণের ঘটনা এবং ৫ নতুন মৃত্যুর ঘটনা সামনে এসেছে। এমন তথ্যই জানিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক। বর্তমানে ভারতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৪৪২১ জন, মৃত ১১৪ জন।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ন’টা পর্যন্ত ভারতে করোনা পজিটিভের সংখ্যা ৪৪২১ জন। যার মধ্যের রয়েছে ৩৯৮১টি সক্রিয় ঘটনা, তেমনই ৩২৫ জনকে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন। এদিন সকাল অবধি মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১১৪ জন।

করোনা মোকাবিলায় ১ এপ্রিল থেকে এক বছরের জন্য রাষ্ট্রপতি, উপরাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, রাজ্যপাল, মন্ত্রী ও সাংসদদের বেতন তিরিশ শতাংশ কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এমনকী এলাকা উন্নয়নের জন্য আগামী দু’ বছর সাংসদদের আলাদা করে কোনও টাকা দেওয়া হবে না বলেও সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। এই টাকা দেশ গঠনের কাজে লাগানো হবে বলে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানানো হয়েছে।