বর্ধমান (পূর্ব বর্ধমান) : জেলা আদালতের আইনজীবী মিতালি ঘোষকে খুনের তদন্তে নতুন মোড়। প্রথমে ডাকাতির জন্য় খুন বলে মনে করা হচ্ছিল। এবার তার বাড়িতেই মিলেছে সোনার গয়না। ফলে এই খুনের পিছনে রহস্য জমাট হচ্ছে।খুনিদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে রাজ্য জুড়ে বার কাউন্সিলের পেন ডাউন কর্মসূচি । বিঘ্ন হতে পারে আদালতের কাজ।

সম্প্রতি পূর্ব বর্ধমানের আঝাপুরের বাসিন্দা মিতালিকে বেঁধে তার বাড়িতেই খুন করা হয়।তদন্তে নেমে পুলিশ এর আগে সোনার গয়না লুটের বিষয়ে সন্দেহ করেছিল। কিন্তু ঘর থেকে সোনার গয়না মেলায় সেই ধারণা পাল্টে যাচ্ছে। আইনজীবীর খুব পরিচিত কেউ খুনে জড়িত থাকতে পারে বলে মনে করছে পুলিশ। এই ব্যাপারে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। কার কার সঙ্গে মিতালি দেবীর ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল সে ব্যাপারে বিশদে খোঁজখবর নেওয়া শুরু হয়েছে।তদন্তে নেমে পুলিশ খতিয়ে দেখছে, নিহত আইনজীবীর সঙ্গে কারও কোনও বিষয়ে অশান্তি হয়েছিল কিনা।এই খুনে একাধিক ব্যক্তি জড়িত থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলার পুলিস সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, মহিলার ঘরের একটি বাক্স থেকে সোনার গয়না মিলেছে। তবে, আরও সোনার গয়না ছিল কিনা তা পরিবারের লোকজন বলতে পারবেন। তদন্তে নানা তথ্য উঠে আসছে।

বুধবার এই খুনের তদন্তে বেলগাছিয়া ফরেন্সিক সায়েন্স ল্যাবরেটারির একটি দল জামালপুর থানার আঝাপুরে মিতালি দেবীর বাড়িতে আসে।রক্তের নমুনা ও মাথার চুল সংগ্রহ করেন ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা। ঘরের ভিতরে ও বাইরে খুঁটিয়ে পরীক্ষা করেন তাঁরা। খুনি কোন দিক দিয়ে ঘরে ঢুকেছিল তা জানার চেষ্টা করেন তাঁরা।খুনি যে মিতালি দেবীর পরিচিত এবং ঘরের অবস্থানের বিষয়ে বিশেষভাবে ওয়াকিবহাল সে ব্যাপারে নিশ্চিত ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা।

মিতালি দেবীর হাত-পা বাঁধা ছিল। এটা নিয়েও ধন্দে পুলিস। তবে, খুনের আগে নিজেকে বাঁচাতে মিতালি দেবী আপ্রাণ চেষ্টা করেছিলেন বলে অনুমান।মনে করা হচ্ছে, খুনির সঙ্গে মিতালি দেবীর ধস্তাধস্তি হয়েছিল। একজনের পক্ষে মিতালিকে কাবু করে তাঁর হাত-পা বাঁধা সম্ভব নয় বলেই মনে করা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে একাধিক জনের উপস্থিতির সম্ভাবনা প্রবল।

ফিঙ্গার প্রিন্ট বিশেষজ্ঞরাও বিভিন্ন জায়গা থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছেন। তাঁদের পাওয়া তথ্যের সঙ্গে ময়না তদন্তের রিপোর্ট বিশ্লেষণ করে দেখার পরই আইনজীবী খুনে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য মিলতে পারে বলে আশা পুলিশের।

আইনজীবী খুনে পুলিসি নিষ্ক্রিয়তার প্রতিবাদে আন্দোলনে নামছেন আইনজীবীরা বৃহস্পতিবার রাজ্য জুড়ে পেন ডাউন কর্মসূচির ডাক দিয়েছে বার কাউন্সিল।বার কাউন্সিলের সভায় এই ব্যাপারে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।